প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম হযরত আশা করি আল্লাহর দয়ায় ভালো আছেন। আপনাকে আমি দেখিনি তবে আপনার জন্য অন্তর থেকে দুআ করি। আপনার এই ওয়েবসাইটের জন্য অনেক বেশী ফায়েদা হচ্ছে আমি সহ অনেক মুসলিম উম্মাহর। আলহামদুলিল্লাহ। দুআ করি আপনার জন্য। আপনিও আমার জন্য দুআ করবেন। হযরত আমার প্রশ্ন গুলো হলো: ১/ হযরত আমি সফরে এবং অন্য সময় তাসবীহ হাতে নিয়ে তাসবীহ আদায় করে থাকি। এতে কি রিয়া হচ্ছে? ২/ তাসবীহ দিয়ে কি সাওয়াব কম হবে হাতের আংগুল দিয়ে করার চেয়ে? ৩/ আমার মনে ওয়াসওয়াসা আসে রিয়া হয়ে যাচ্ছে কিনা? নাকি আমি তাসবীহ সাথে রাখবো না? কিন্তু হযরত আমার তাসবীহ আমাকে আল্লাহর স্মরণ করিয়ে দেয়, আর সকাল-সন্ধ্যার লম্বা আমল তাসবীহ দিয়ে আদায় করা সহজ হয়। আমি কি করবো? এই যে আপনাকে বলছি আমার কেমন লাগছে না জানি রিয়া হয়ে গেলো! ইসলাহের জন্য জবাবের অপেক্ষায় থাকলাম হযরত। জাযাকাল্লাহু খায়রান ফিদ দারাইন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১+৩। যদি বাস্তবেই আল্লাহর রাজী খুশীর জন্য যিকির করে থাকেন তবে রিয়া হবে না। আপনি নিজেই অন্তরের অবস্থা বুঝবেন আপনি কার জন্য যিকির করছেন। শয়তান রিয়ার ওয়াসওয়াসা এনে আমল থেকে বিরত রাখতে চায়। তাই বাস্তবেই আল্লাহর রাজী খুশীর জন্য যিকির করে থাকলে, মনের মধ্যে প্রথমে এমন কিছু আসলেও ধীরে ধীরে তা দূর হয়ে যাবে। তাই রিয়ার ওয়াসওয়াসায় শয়তানের ধোঁকায় আমল ছেড়ে দিবেন না। বরং এখলাছের সাথে আমল চালিয়ে যাবেন। পাশাপাশি কোন আল্লাহ ওয়ালার সাথে সম্পর্ক রাখবেন। ইংশাআল্লাহ সব ঠিক হয়ে যাবে।
২। না, কম হবে না।

649,653 total views, 1,879 views today