প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। প্রশ্ন ১। রাগের মাথায় স্ত্রীকে বললাম তোমাকে আমি ছেড়ে দিব এতে কি স্ত্রী তালাক হবে চাই নিয়ত থাকুক বা না থাকুক? প্রশ্ন ২। স্ত্রীর অবাধ্যতার কারণে মাঝে মাঝে নিজে চিন্তা করি তাকে তালাক দিব কি দিব না, একবার সিদ্ধান্ত নেই দিব আবার সিদ্ধান্ত নেই দিব না। ৩। তাকে প্রায় সময়ই বলি তোমাকে আমার প্রয়োজন নাই, তোমার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নাই, কোন সময় যে কি বলি মাথা ঠিক রাখতে পারিনা, এতে নিয়ত থাকা বা না থাকা নিয়ে অনেক সময় সন্দেহ হয়, নিয়ত নিয়ে সন্দেহে যদি মনে খুতখুতি থাকে যে স্ত্রী তালাক হয়ে গেল কিনা, এক্ষেত্রে সমাধান কি? প্রশ্ন ৩। আল্লাহ না করুন উপরোক্ত কথায় যদি এক তালাক পতিত হয় তবে নতুন মোহর ধার্য করতঃ বিবাহ সম্পন্ন করলে তাতে পূর্বের মোহর কি বাতিল হয়ে যাবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। না, তালাক হবে না।–রদ্দুল মুহতার ২/৩১৯; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৩৮৪
২। মুখে উচ্চারন করা ব্যতীত মনের কোন কথা বা সিদ্ধান্তের দরুন কখনো তালাক পতিত হয় না।-রদ্দুল মুহতার ৩/২৩০
৩। তানকীহ (প্রশ্ন স্পষ্টকরণ): আসলে কথাগুলো তো আপনিই বলেছিলেন। তাই একটু স্মরণ করার চেষ্টা করুন। প্রশ্নের “তাকে প্রায় সময়ই বলি” এই অংশ থেকে মনে হয় কথাগুলো তাকে অনেক বারই বলেছেন। প্রতিবারেই নিয়তের বিষয়টি সন্দেহযুক্ত থাকা বোধগম্য নয়। প্রশ্নে আপনি বলেছেন “অনেক সময় সন্দেহ হয়” কাজেই এর দ্বারা বুঝা যায় কোন কোন ক্ষেত্রে আপনার সন্দেহ নেই। তাছাড়া নিজের কথায় এতটা সন্দেহ থাকাও অস্বাভাবিক। তাই একটু খেয়াল করুন, কথাগুলো কোন নিয়তে বলেছিলেন? কখনো কি তালাকের নিয়তে বলেছিলেন?
এগুলো জানার পরেই আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে ইংশাআল্লাহ।
তানকীহের উত্তর: আমি খেয়াল করে দেখলাম, স্ত্রীর কার্যকলাপে আমি অনেকবারই মনে মনে স্ত্রীকে তালাক দেয়ার কথা চিন্তা করেছি ও সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যখন চিন্তা করেছি বা মনে মনে সিদ্ধান্ত নিয়েছি তখন স্ত্রীকে কিছুই বলিনি, মনের কথা মনেই ছিল কিন্তু যখন রাগের মাথায় বলেছি তোমাকে আমি ছেড়ে দিব, তোমাকে আমার প্রয়োজন নাই, তোমার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নাই, এ কথাগুলো বলার সময় মনে এমন কোন নিয়ত ছিল না যে, এখনই তালাক দিয়ে দিব। প্রশ্নের উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম।
আর হুজুর আমার নতুন প্রশ্ন হল, স্ত্রীর সাথে যখন মিল হয়ে গেল সে আমাকে বলল আপনি আমাকে একদিন বলেছেন আমি তোমাকে ছেড়ে দিব তখন আমি তাকে বললাম- কখন বলেছি আমি তোমাকে ছেড়ে দিব? আর যদি বলেই থাকি রাগের মাথায় বলেছি তালাকের নিয়ত করে বলিনি। এ কথায় কি কোন সমস্যা হয়েছে?

মূল উত্তরঃ প্রশ্নে আপনি লিখেছেন “তোমাকে আমার প্রয়োজন নাই, তোমার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নাই, এ কথাগুলো বলার সময় মনে এমন কোন নিয়ত ছিল না যে, এখনই তালাক দিয়ে দিব”। কাজেই প্রশ্নের বর্ণনা যদি সত্য হয় তবে আপনার স্ত্রীর উপর কোন তালাক পতিত হয়নি।
উল্লেখ্য যে, তালাকের মাসায়েল খুবই নাযুক। অনেক সময় না জানার কারনে নিজের অজান্তে এমন কথা হয়ে যায় যার দরুন হয়তোবা একটি পুরো পরিবারকে সারা জীবন কান্নাকাটি করতে হয় অথবা যিনার অভিশপ্ত গুনাহে ডুবে থেকে জাহান্নামের দিকে অগ্রসর হতে হয়। তাই প্রত্যেক বিবাহিচ্ছুক ও বিবাহিত ব্যক্তিকে বিবাহ-তালাক সংক্রান্ত মাসায়েল সম্পর্কে অবগত হওয়া জরুরী।
ভবিষ্যতে এ ধরণের কথা-বার্তা বলার ব্যাপারে খুব সতর্ক থাকবেন। আর নিম্নোক্ত লিঙ্কের প্রবন্ধটি ভালো করে পড়ে নিবেন-
http://muftihusain.com/article/%E0%A6%86%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A7%9F%E0%A6%A4%E0%A6%AE%E0%A6%BE-%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%80%E0%A6%97%E0%A6%A8/
আর পূর্বেও বলা হয়েছে “আমি তোমাকে ছেড়ে দিব” এ কথা বলার দ্বারা তালাক পতিত হয় না।
৪। হ্যাঁ, বিবাহ বাতিল হয়ে যাওয়ার দরুন নতুন করে বিবাহ করতে হলে পুনরায় মোহর ধার্য করতে হবে।

 748,884 total views,  541 views today