প্রশ্ন : দোকান ভাড়া নেয়ার সময় সিকিউরিটি মানি দিতে হয়। এখন আমি যদি সিকিউরিটি মানি X পরিমান টাকা দেয়ার চুক্তি আলাদা করি আর ভাড়া Y পরিমান টাকা দেয়ার চুক্তি আলাদা করি। তাহলে কি কোন সমস্যা হবে? নতুন একটি ব্যাবসা শুরু করতে চাচ্ছি। দোকান ভাড়া নিব।

উত্তর :

প্রিয় দ্বীনী ভাই আপনার উত্তর দিতে কিছুটা বিলম্ব হওয়ায় আন্তরিকভাবে দুঃখিত।
দোকান ইত্যাদি ভাড়া নেওয়ার সময় সিকিউরিটি মানির বিষয়টি যথাসম্ভব এড়িয়ে চলা কর্তব্য। এক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদী অগ্রিম ইজারার চুক্তি করা যেতে পারে। যেমন পাঁচ বছরের ভাড়া গ্রাহক অগ্রিম পরিশোধ করবে। কিন্তু মুশকিল হল শহরাঞ্চলে আজকাল সিকিউরিটি মানি ব্যতীত দোকানপাট ভাড়া পাওয়া যায় না বললেই চলে। তাই একান্ত সিকিউরিটি মানি দিতেই হলে সেক্ষেত্রে মালিককে বুঝিয়ে ভাড়ার চুক্তির সাথে সিকিউরিটি মানির চুক্তি সম্পূর্ণ পৃথক করে ফেলবে। অর্থাৎ ইজারা বা ভাড়ার চুক্তির পূর্বে গ্রাহক মালিককে ওয়াদা দিবে, ভাড়া চুক্তির পর সে তাকে নির্ধারিত পরিমান টাকা নির্ধারিত মেয়াদে ঋণ দিবে। এরপর ভাড়ার চুক্তির সময় উক্ত ঋণের ব্যাপারে কোন কথা বলবে না। পরবর্তীতে ভাড়ার চুক্তি হয়ে গেলে সম্পূর্ণ পৃথকভাবে ঋণের চুক্তি করবে।–ফাতাওয়া খানিয়া ২/১৩৮; রদ্দুল মুহতার ৪/১৩৫