প্রশ্ন : মসজিদের দ্বিতীয় তলায় এবং তৃতীয় তলায় হেফজ খানা ও কিতাব খানা চালু রয়েছে। সেখানে উস্তাদগণ খাট রেখে তাতে ঘুমায়। আমার জানার বিষয় হলো উস্তাদদের জন্য এভাবে খাট রেখে সেখানে (ইতিকাফের নিয়ত ছাড়া বা ইতিকাফের নিয়তে) সর্বদা থাকা জায়েয হবে কি না? দলীলসহ জানালে খুব উপকৃত হবো।

উত্তর :

মসজিদে স্থায়ীভাবে মাদ্রাসা কায়েম করা জায়েয নয়। তবে দ্বীনী তালীম জারি রাখা এটাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। দ্বীনের সকল শাখা চালু থাকার জন্য দ্বীনী তালীমের বিকল্প নেই। তাই স্থায়ী ব্যবস্থা হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত দ্বীনী তালীমের জন্য মসজিদে অবস্থান করা জায়েয।
আর রইল মসজিদে খাট স্থাপন করার প্রসঙ্গ তো, যাদের জন্য মসজিদে অবস্থান করা জায়েয তাদের জন্য মসজিদে খাট স্থাপন করে তাতে ঘুমানো জায়েয। হযরত ইবনে উমর (রাঃ) থেকে বর্ণিত-
عن النبي صلى الله عليه و سلم أنه كان إذا اعتكف طرح له فراشه . أو يوضع له سريره وراء أسطوانة التوبة
অর্থঃ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন ইতিকাফ করতেন, তার জন্য বিছানা বিছানো হত অথবা তাওবার স্তম্ভের পিছনে খাট স্থাপন করা হত।–সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং ১৭৭৪

600,645 total views, 865 views today