প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। হযরত আমার স্ত্রীর পক্ষ থেকে করা একটি প্রশ্নের উত্তর এখনো বাকী আছে। তারপরেও জানার জন্য আপনাকে আরেকটি প্রশ্ন করছি বিধায় কষ্ট নিবেন না। আপনি যখন সময় পান তখনই উত্তর দিবেন। জাযাকাল্লাহু খাইরন। প্রশ্ন হল আজকে তিনদিনের জামাতের সফরের হেদায়াতের কথায় বিনা এজাজতে কারো মাল ধরবো না এ পয়েন্ট বর্ণনা করার সময় বক্তা বললেন যে, কিছু মানুষের (সম্ভবত সাত জন বা নয় জন বলেছেন) মাল বিনা অনুমতিতে ধরা যায়। কিন্তু তারা কারা তা বলেননি। সময়ের স্বল্পতার কারণে হয়তো বলেননি। আর হেদায়েতের কথা শেষে তিনি দ্রুত চলে যাওয়াতে তার কাছ থেকেও আর জানা হয়নি। নেটে সার্চ দিয়েও পেলাম না। তাই যদি বলেন যে, উক্ত ব্যক্তি কারা যাদের মাল বিনা অনুমতিতে ধরা যায় বা খরচ করা যায় তবে উপকৃত হব। আর এটা কি সব সময় নাকি বিশেষ প্রয়োজনে বা সময়ে বিনা অনুমতিতে ধরা যায় তাও বিস্তারিত জানালে উপকৃত হব। আল্লাহ তাআলা আপনার কষ্টের উত্তম বিনিময় দুনিয়া ও আখেরাত উভয় জাহানে দান করুন। আমীন। জাযাকাল্লাহু খাইরন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ।

আসলে অনুমতি ব্যতীত কারো সম্পদই ধরা যায় না। তবে শুধু কেবল পিতাই প্রয়োজনে তার সন্তানের সম্পদ বিনা অনুমতিতে ধরতে পারে।  আর অনুমতির সূরতও একাধিক হতে পারে। যেমন মৌখিকভাবে স্পষ্ট অনুমতি, ইশারা ইঙ্গিতের মাধ্যমে অথবা ভাবের মাধ্যমে। অর্থাৎ কেউ কারো কিছু দীর্ঘদিন থেকে ব্যবহার করে আসছে আর সে তা জানে কিন্তু কিছু বলে না।

593,109 total views, 85 views today