প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। হযরত যাকাত সম্পর্কে কিছু নিয়ম জানার দরকার ছিল। কারন যাকাতের ব্যপারে আমাদের সমাজ তেমন একটা গুরুত্ব দেয় না। আমার বোন তালাক প্রাপ্তা। তার কোন আয় রোজগার নেই। আমি তার ভরণ পোষণ নির্বাহ করি। তাঁর কাছে তালাকের পর থেকে অর্থাৎ গত ৩ বছর যাবৎ প্রায় ২ ভরি স্বর্ন আছে এবং কিছু বিদেশি মুদ্রা রয়েছে যার বাজার দর আনুমানিক ৩০০ টাকার মতো। যাকাতের বিধান সম্পর্কে যা জেনেছি তাঁতে তার উপর যাকাত ফরজ হয়ে গেছে মনে হয় স্বর্ণ ও বিদেশি মুদ্রা থাকার জন্য। কিন্তু তার কাছে যে বিদেশি মুদ্রা আছে তা বিক্রি করে এই ৩ বছরের যাকাত পরিশোধ করা সম্ভব হবে না। আর অন্য কোন নগদ অর্থ তার কাছে নেই এমন অবস্থায় তাকে কি তার জমাকৃত স্বর্ণ বিক্রি যাকাত আদায় করতে হবে? আর সে যেহেতু স্বাবলম্বী নয় তাকে কি যাকাত দিতে হবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ

হ্যাঁ, প্রশ্নের বর্ণনা অনুযায়ী তার উপর যাকাত ফরজ। তার অনুমতি সাপেক্ষে আপনি তার যাকাত আদায় করে দিতে পারেন। অন্যথায় তার নিকট নগদ অর্থ না থাকলে স্বর্ণ বিক্রি করে যাকাত আদায় করতে থাকবে। যখন তার সম্পদ নেসাবের নীচে নেমে আসবে তার উপর আর যাকাত ফরজ হবে না।

599,452 total views, 654 views today