প্রশ্ন : আমাদের পরিবারে আমরা ছয় ভাই এক বোন এবং আম্মা আব্বা। আমরা যখন ছোট ছিলাম, ইনকাম করি না তখন থেকে প্রায় 20 বছর আগে থেকে কোরবানির জন্য নেসাব পরিমাণ ইনকাম করত একমাত্র আব্বা এবং বড় ভাইয়া। তখন থেকে দেখে আসছি একটি গরু দিয়ে আমাদের কোরবানি করা হয়। বড় ভাইয়া যুক্তরাষ্ট্রে থাকতেন এবং কোরবানির আগে টাকা পাঠিয়ে দিতেন। আমরা বাকি সবাই দেশে থাকতাম এবং এক সাথেই থাকতাম। গত 4-5 বছর ধরে কিছু পরিবর্তন এসেছে। বড় ভাই আমেরিকাতেই থাকেন। বোনের বিয়ে হয়ে গেছে। বাকি আমাদের পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে সবাই কোরবানির জন্য নেসাব পরিমাণ আয় করে। চারজনের মধ্যে তিনজন বউ এবং ছেলেমেয়ে নিয়ে আলাদা আলাদা বাসায় থাকেন তাদের সংসার সম্পূর্ণ আলাদা। আমরা ছোট দুই ভাই অবিবাহিত, দুজনই আম্মা আব্বা সহ এক সাথে থাকি। বর্তমানে আমরা কোরবানি করার সময় বড় ভাই আমেরিকা থেকে টাকা পাঠান, আমরা যে 2 ভাই আব্বা আম্মা সহ একসাথে থাকি আমরা দুজনে টাকা দিয়ে অংশীদার হই। এছাড়া আলাদা থাকা অন্য দুই ভাইও টাকা দিয়ে কোরবানিতে অংশীগ্রহণ করে এবং আমাদের বাসায় এক সাথেই কোরবানি হয়। টাকা দিয়ে অংশগ্রহণ করা সবার নামে এবং সাথে আব্বা আম্মার নামে কোরবানি করা হয়। অংশগ্রহণ করা কারো টাকার পরিমাণ সমান হয় না। একান্তই যার যার সামর্থ্য এবং ইচ্ছা অনুযায়ী টাকার পরিমান দিয়ে অংশগ্রহণ করে।কোরবান শেষে আলাদা থাকা দুই ভাই তাদের ছেলে মেয়ে এবং বউ সহ আমাদের বাসায় দুই-একদিন একসাথে থাকা হয়। 2-1 দিন পর যে দু’ভাই আলাদা থাকে তারা তাদের বাসায় চলে যাওয়ার সময় আম্মা তাদেরকে কিছু মাংস দিয়ে দিয়ে দেয়। তবে কোনরকম ভাগ-বাটোয়ারা করা হয়না। এমনকি তাদের অংশগ্রহণ করা টাকার পরিমাণের উপর ভিত্তি করেও দেওয়া হয় না। একান্তই তাদের পরিবারের সদস্যের সংখ্যার উপর নির্ভর করে মাংস দেওয়া হয়। এ ব্যাপারে তারা কখনো সন্তুষ্টি বা অসন্তুষ্টি প্রকাশ করতে দেখিনি। তবে মনের মধ্যে কিছু থাকে কিনা সেটা আমাদের জানা নেই। হতে পারে তারা এভাবে কোরবান করাতে সন্তুষ্ট। আবার হতে পারে তারা সন্তুষ্ট নয় বরং দীর্ঘদিনের পরিবারের ঐতিহ্য হিসেবে এভাবেই করেন। তাদের মতামত জিজ্ঞেস করলেও হয়তো মুখ লজ্জায় কিছু বলবে না বরং যেভাবে চলে আসছে সেভাবে করার ব্যাপারে মত দিবে। প্রশ্ন হচ্ছে এভাবে কি ঠিক হচ্ছে? সামনে কোরবান। তাই হঠাৎ করে মাথায় আসলো এভাবে কোরবান করলে হবে নাকি টাকার পরিমাণ এবং মাংসের বন্টন ভাগ অনুযায়ী করতে হবে?

উত্তর :

প্রিয় দ্বীনী ভাই, আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে কিছুটা বিলম্ব হওয়ায় আন্তরিকভাবে দুঃখিত। আসলে আমি কুরবানীর পূর্বেই কুরবানী সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরগুলো দিয়ে দিয়েছিলাম। কিন্তু আপনার প্রশ্নটি আমার নযরে পড়েনি।
না, এতে কোন সমস্যা নেই।

596,420 total views, 53 views today