প্রশ্ন : মুহতারাম, আসসালামু আলাইকুম। দয়া করে জরুরীভিত্তিতে নিম্নলিখিত সূরতে মাসআলার সমাধান দিয়ে বাধিত করবেন। সূরতে মাসআলাঃ আমি এক ব্যক্তির কাছ থেকে মুদারাবার ভিত্তিতে ৫,০০০০০ (পাঁচ লক্ষ) টাকা নিতে চাই। উক্ত টাকা সরাসরি আমি ব্যবসায় বিনিয়োগ না করে, আমি আবার আরেক জনকে মুদারাবার ভিত্তিতে দিতে চাই। প্রশ্ন হলো, এভাবে চুক্তিবদ্ধ হওয়া বৈধ হবে কি না? যদি বৈধ হয়, তাহলে লভ্যাংশ বন্টনের নীতি কী হবে? আমরা যদি এভাবে হিসেব করি যে, টোটাল লভ্যাংশের ৪০℅ নিবে মুদারিব। ২০% নিবো দ্বিতীয় রাব্বুল মাল হিসেবে আমি। ৪০% নিবে প্রথম রাব্বুল মাল অর্থাৎ আমাকে যিনি টাকা দিয়েছেন। এভাবে চুক্তিবদ্ধ হওয়া কি শরীয়াসম্মত হবে? যদি না হয়, তাহলে আমাদের ৩ জনের বৈধ পন্থায় ব্যাবসায়িক লেনদেনের কোন সূরত আছে কি?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
যদি আপনি টাকা নেওয়ার সময় তার থেকে এভাবে বলে নেন যে, ব্যবসা আমি নিজেও করতে পারি অথবা অন্য কাউকে দিয়ে করাতে পারি, আর সে অনুমতি দিয়ে থাকে তবে আপনার জন্য অন্য কাউকে তা ব্যবসার জন্য দেওয়া জায়েয হবে। এভাবে অনুমতি না দিলে আপনার জন্য অন্য কাউকে দেওয়া জায়েয হবে না।
আর রইল লভ্যাংশের প্রসঙ্গ, তো এর সহীহ পদ্ধতি হল, আপনার সাথে তৃতীয় ব্যক্তির চুক্তি হবে। অতঃপর আপনার প্রাপ্য অংশ থেকে নির্দিষ্ট চুক্তি অনুযায়ী প্রথম ব্যক্তি পাবে। যেমন ধরে নেয়া যাক, প্রথম ব্যক্তির সাথে আপনার চুক্তি হল উভয়ে অর্ধেক অর্ধেক (যা পরিবর্তনযোগ্য) করে পাবে। আবার তৃতীয় ব্যক্তির সাথে আপনার চুক্তি হল উভয়ে অর্ধেক অর্ধেক (যা পরিবর্তনযোগ্য) করে পাবে। এখন যদি তৃতীয় ব্যক্তি ১২ টাকা লাভ করে তবে আপনি ৬ টাকা আর তৃতীয় ব্যক্তি ৬ টাকা পাবে। আবার আপনার উক্ত ৬ টাকা থেকে আপনি ৩ টাকা আর প্রথম ব্যক্তি ৩ টাকা পাবেন।

596,442 total views, 75 views today