প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, আমার ১ম প্রথম প্রশ্ন হচ্ছে, আমি খাস পর্দা করতে খুবই ইচ্ছুক। বাসায় মোটামুটি পর্দার ব্যবস্থা আছে, তবে অনেক সময় দেখা যায় খুব দরকারে কাজের লোকদের সামনে আসতে হয় বা কেউ হুট করে চলে আসলো। এ থেকে মুক্তি পেতে আমার কি করণীয়? বা তখন আমার অনিচ্ছায় কারো সামনে চলে আসা এতে আমার গুনাহ্ হবে কিনা? আমার ২য় প্রশ্ন হচ্ছে, আমি কোন মাদ্রাসায় পড়ি না পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছি। এখানে আমাকে প্রাইভেট পড়তে হয়, টিচারও পুরুষ। বন্ধু বান্ধুবীদের সাথে পড়াশুনার বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করতে হয়। অনেক সময় কথা বলতে গেলে তাদের চোখে চোখ পড়ে যায়। এখন আমি যদি পড়াশুনার প্রয়োজনে তাদের সাথে কথা বলি বা গ্রুপ করি তাহলে কি আমার গুনাহ্ হবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। আপনি ঘরে যেটা করবেন, আপনার কামরায় পরপুরুষ কোন প্রয়োজনে প্রবেশ করতে চাইলে তাকে অনুমতি নিতে হবে, এটা জানিয়ে দিবেন। আপনার কামরায় পরপুরুষের কোন কাজ থাকলে আপনি অন্য কামরায় যাবেন অতঃপর সে আপনার কামরায় প্রবেশ করবে। এরপরেও হঠাৎ ভুলে কেউ কখনো সামনে চলে এলে কোন গুনাহ হবে না।
২। দুনিয়াবী শিক্ষা গ্রহন করা শর্তসাপেক্ষে জায়েয মাত্র। ইসলাম সহশিক্ষা সমর্থন করে না। এই সহশিক্ষার অপকারীতা ও খারাবী যে কত জঘন্যতম তা বর্তমানে স্পষ্টভাবে অবলোকিত হচ্ছে। এর দ্বারা যিনা ব্যভিচার ও বেহায়াপনার দরজা একেবারেই খুলে গিয়েছে। কত মেয়েদের সম্ভ্রম ও ইজ্জত যে নষ্ট হচ্ছে তার কোন ইয়াত্তা নেই। কাজেই সহশিক্ষার মাধ্যমে দুনিয়াবী শিক্ষা অর্জন করা কখনো জায়েয হতে পারে না।
কাজেই আপনি প্রাইভেট পড়তে চাইলে বা কোন কিছু আলোচনা করতে চাইলে অবশ্যই মহিলা শিক্ষিকা বা বান্ধবীদের সাথে আলোচনা করবেন। পুরুষের নিকট প্রাইভেট পড়া বা তাদের সাথে কিছু আলোচনা করা জায়েয হবে না। নিম্নোক্ত লিঙ্কে আপনি আরো বিস্তারিত জানতে পারবেন-
http://muftihusain.com/ask-me-details/?poId=2896
সূত্রসমূহঃ সূরা আহযাব : ৫৩; তাফসীরে কুরতুবী ১৪/১৪৬; আহকামুল কুরআন, জাসসাস ৩/৩৫৯