প্রশ্ন : বিয়ের প্রথমে আমার স্ত্রীর দেনমোহন পরিশোধ করতে পারিনি।কিছু গহনা দিয়েছিলাম কিন্তু তাকে বলা হয়নি এ গহনা তোমার দেনমোহর বাবদ দেওয়া হল। আমার খালা বলেছিলেন ১ম দিন স্ত্রীর কাছে মাফ চেয়ে নিতে। আমি ভুলে গিয়েছিলাম। বিয়ের তিন চারদিন পর মাফ চেয়ে নিয়েছি। আমার প্রশ্ন (১) প্রথম দিন ভুল বশত মাফ চাইতে পারিনি এতে সমস্যা হয়েছে কিনা? (২) স্ত্রীর দেনমোহর পরিশোধের পদ্ধতি কি? (৩) স্ত্রীর খাওয়া দাওয়া আমার পিতার মাধ্যমে চলে, আমি যদি প্রতি মাসে স্ত্রীকে খোরপোষ বাবদ কিছু টাকা করে দিতে থাকি আর তাকে বলি যে প্রতি মাসে তোমার খরচের জন্য এত টাকা করে তোমাকে দিব, আর উক্ত টাকা তোমার দেনমোহর বাবদ প্রতি মাসে মাসে পরিশোধ হতে থাকবে। তাহলে কি দেনমোহর পরিশোধ হবে? জানালে খুবই উপকৃত হবো।

উত্তর :

১। এটা কোন সহীহ পদ্ধতি নয়। মোহর স্ত্রীর হক এবং তা আদায় করা ফরজ। তাছাড়া বিবাহের প্রথম দিকে স্ত্রী লজ্জার খাতিরে মৌখিকভাবে মাফ করবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সে আন্তরিকভাবে এর উপর অসন্তুষ্ট থাকতে পারে। এমনটি হলে আপনি দায়ী থেকে যাবেন। তবে অন্তর থেকে মাফ করে দিলে ভিন্ন কথা।

উল্লেখ্য যে, মোহর ধার্য্য করার সময় সক্ষমতার বিষয়টি বিবেচনায় আনা অত্যন্ত জরুরী। এক্ষেত্রে বাড়াবাড়ি না করা চাই। আর শুরু থেকেই মাফ চেয়ে নেয়ার প্রবনতাও খুব অসঙ্গত।এমনটি হলে তো কুরআনের একটি হুকুম তামাশায় পরিনত হবে।–সূরা নিসা, আয়াত ৪; মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং ২০৬৯৫।

২। আপনার সুবিধামত আদায় করবেন। পূরোটা একসাথে পারলে একসাথে অন্যথায় ধীরে ধীরে আদায় করতে থাকবেন।

৩। স্ত্রীর খোরপোষ বাদে অন্য কিছু মোহর হিসেবে দিলে তা মোহর গণ্য হবে। প্রশ্নে আপনি লিখেছেন স্ত্রীর খাওয়া দাওয়া আমার পিতার মাধ্যমে চলে তাহলে আবার আপনি স্ত্রীকে কিসের খোরপোষ দিয়ে থাকেন তা বোধগম্য নয়? খোরপোষ মোহর হিসেবে গণ্য হয় না।

সারকথা খোরপোষ বা নিত্যপ্রয়োজনীয় খরচ ব্যতীত স্ত্রীকে আপনি মোহরের নিয়তে যা আদায় করবেন এবং স্ত্রী গ্রহন করবে, তা মোহর গণ্য হবে।– রদ্দুল মুহতার ৩/৫৯৬; তাব্য়ীনুল হাকায়েক ৩/৩১৩, ফাতাওয়া মাহমূদিয়া ১২/৮৯।

667,929 total views, 1,238 views today