প্রশ্ন : প্রায় ২-৩ ঘন্টা ভ্রমণ করলে নামাযের ওয়াক্ত হলে যদি আমি বাসে থাকি তাহলে কি পরে নামায পড়া যাবে নাকি আগেই পড়ে নিতে হবে? যেমনঃ আমি সকালে ৮-০০ টায় গাড়িতে উঠলে বিকেলে/সন্ধ্যায় ঢাকা পৌছাই। তাহলে কি আমাকে আগেই নামায পড়া লাগবে নাকি পরে পড়ব?

উত্তর :

আপনি গাড়ি থামিয়ে ওয়াক্তমতই নামায আদায় করবেন।গাড়ির সুপারভাইজার বা ড্রাইভারকে নামাযের সময় থামানোর অনুরোধ করলে তারা থামাবে ইংশাআল্লাহ। আর নামায সময়মত না পড়ে পরে পড়া মারাত্মক গুনাহের কাজ। জামাআতের সাথে না পড়তে পারলেও কমপক্ষে ওয়াক্তের মধ্যে তো পড়তেই হবে।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন “যে ব্যক্তির এক ওয়াক্ত নামায ছুটে গেল তার যেন পরিবার-পরিজন ধন-সম্পদ সবকিছুই লুট হয়ে গেল”- সুনানে নাসাঈ, হাদীস নং ৪৭৯।

এছাড়াও হাদীস শরীফে আরো বিভিন্ন ধমকির কথা এসেছে নামায তরকারীর ব্যাপারে।

667,579 total views, 888 views today