প্রশ্ন : কারো যদি এক বছরের কাযা নামায থাকে,এবং উক্ত কাযার মধ্যে সফরের কাযাও রয়েছে এবং মোকিম অবস্হার কাযাও রয়েছে।এমতাবস্হায় তার কাযা আদায়ের পন্থা কি বা কিভাবে নিয়ত করবে?

উত্তর :

যে নামায সফরে কাযা হয়েছে তা যোহর ও আছর হলে (কসর হিসেবে) দুই রাকাআত কাযা আদায় করবে এবং মুকীম অবস্থায় যেগুলো কাযা হয়েছে তা পূরো আদায় করবে। চাই সে কাযার সময় মুকীম বা মুসাফির যা-ই থাকুক না কেন। অর্থাৎ নামায যে অবস্থায় কাযা হয় সেই অবস্থা ধর্তব্য। যখন কাযাকৃত নামায আদায় করছে সে অবস্থা ধর্তব্য নয়।

আর নিয়ত এভাবে করবে আমি আমার জিম্মায় থাকা শেষ ফজর/যোহর/আছর/মাগরিব / ইশা বা বিতিরের কাযা নামায আদায় করছি আল্লাহু আকবার।প্রত্যেকবার এভাবেই নিয়ত করবে। এভাবে একসময় তার সকল নামাযের কাযা আদায় হয়ে যাবে।– আদ্দুররুল মুখতার ২/৭২; তাতারখানিয়া ২/৭৬৬; আল বাহরুর রায়েক ৪/১৯৬।

667,798 total views, 1,107 views today