প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। হযরত অতি নম্রতা ও শ্রদ্ধার সাথে আমার জানার বিষয় দুইটি। যদি প্রশ্ন দুইটি করার দ্বারা আপনি মনে কষ্ট পান বা বেয়াদবী সুলভ হয় তবে ক্ষমা করবেন এবং যদি প্রশ্ন দুইটির উত্তর দেওয়া আপনার নিকট অপছন্দনীয় হয় তবে উত্তর না দিলেও হবে। এতে আমার কোন আপত্তি নেই। শুধু হযরত ইব্রাহীম আলাইহিস সালাম এর পাখি মৃত্যু পর পূনরায় জীবিত করার ঘটনার মত জানার আগ্রহে প্রশ্ন দুইটি করছি। বেয়াদবী ক্ষমা করবেন। প্রশ্ন ১। আমার এই লিঙ্কের http://muftihusain.com/ask-me-details/?poId=1042 প্রশ্নোত্তরটি মোট দেখা হয়েছে 55,317 (total views) বার এবং আজকের দেখা 119 (views today) বার। আমার প্রশ্ন এটা কি সঠিক তথ্য। নাকি অটোমেটিক একটি সংখা আসে? (বেয়াদবী ক্ষমা করবেন।) প্রশ্ন ২। এই ওয়েব সাইটটি দ্বারা কি আপনার কোন রকম উপার্জন হয়? (অনুগ্রহ করে বেয়াদবী ক্ষমা করবেন। শুধু জানার জন্য এবং অভিজ্ঞতা নেয়ার জন্য প্রশ্নটি করেছি। কারণ অনেকে বলে আপনি নাকি এর দ্বারা উপাজর্ন করেন।)

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমু সালাম
(১) আমার এই ওয়েবসাইটটির পরিকল্পনা সর্বপ্রথম করেন আমার প্রিয় ছাত্র, বন্ধু ও মহব্বতকারী সুমন ইকবাল ও কাউছার ভাই। তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী শ্রদ্ধেয় কাইযার ভাই অক্লান্ত পরিশ্রম করে একটি অবকাঠামো দাড় করিয়েছেন। পরবর্তীতে এই কাফেলায় শ্রদ্ধেয় নাঈম ভাই এবং আশরাফ ভাই শামিল হন। আল্লাহ্‌ তাআলা তাদেরকে জাযায়ে খায়ের দান করুন। তখন ভিজিটর কাউন্ট এর কাজটি করতেন জাকির ভাই নামের একজন। তিনি কোম্পানী থেকে চলে গেলে কাজটির অসমাপ্ত অবস্থায় ইতি ঘটে। পরবর্তীতে আমি কাইযার ভাই সহ অন্যান্যদের বিষয়টি অবহিত করলে তারা দেখবেন বলে আশ্বাস দেন। তবে তাদের ব্যস্ততার কারনে এখন পর্যন্ত তা অসমাপ্তই রয়ে গেছে। আর বিষয়টি আমারও সাধ্যের বাইরে। আশা করি দ্রুত বিষয়টির সমাধান পাওয়া যাবে ইংশাআল্লাহ।
বর্তমানে এর অবস্থা হল, total views এ যা দেখায় সেটা হল এ পর্যন্ত সমস্ত প্রশ্নগুলো মোট যতবার দেখা হয়েছে তার সংখ্যা। নির্দিষ্টভাবে এই প্রশ্নটির ভিজিটকৃত সংখ্যা নয়। todays view এর খেত্রেও বিষয়টি অনুরূপ।
(২) আর রইল উপার্জনের প্রসঙ্গ, তো এই ওয়েবসাইট থেকে আমার একটি পয়সাও উপার্জন হয় না। বরং শুরুলগ্ন থেকেই এর পিছনে কিছু অর্থ ব্যয় করে আসছি। আর ওয়েবসাইট থেকে যে অর্থ উপার্জন করা যায় এটাও আমি জানি না। প্রতি বছর বেশ কিছু ওয়াজ –মাহফিলে যাওয়ার সুযোগ হয়। আজ পর্যন্ত আল্লাহ্‌ তাআলার তাউফীকে কোন মাহফিল থেকে একটি টাকাও বিনিময় হিসেবে নেইনি। আমার শায়েখের (শাইখুল হাদীস মুফতী মাওলানা মানসূরুল হক সাহেব দাঃ বাঃ) পরামর্শ অনুযায়ী আল্লাহ্ তাআলার খাছ তাওফীকে এখনও নবীদের নীতির (আমি তোমাদের নিকট কোন প্রতিদান চাইনা, আমার প্রতিদান তো আল্লাহ্ তাআলার নিকট-সূরা ইউনূস, আয়াত ৭২) উপর রয়েছি। অনুরূপভাবে বেশ কিছু কিতাবাদি প্রকাশনারও কাজ চলছে। সেগুলো থেকেও শায়েখের অনুসরণে কোন লভ্যাংশ নিজ প্রয়োজনে ব্যয় করার বা গ্রহন করার নিয়ত নেই।

 828,381 total views,  896 views today