প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। হুজুর আমার প্রশ্ন আমি অফিসে কাজের পাশাপাশি ইমামতি করি। হুজুর আমি যদি মেসওয়াক বা ব্রাশ বা আঙ্গুল দিয়েও উযূর সময় দাত মাজি তবে অজু শেষ হবার পর যখন শেষ থুতু ফেলি তখন থুতু হালকা লাল থাকে। এমতাবস্থায় আমার নামায হবে কি? যদি আঙ্গুল বা মেসওয়াক না করি শুধু কুলি করি তবে এমন হয়না। বেশ কিছু সময় প্রায় ৮-১০ মিনিট অপেক্ষা করার পর ঠিক হয়। অনেক সময় অজুর পর এত সময় থাকে তাই ঐ অবস্থা নিয়েই নামায পড়াই। এতে আমার নামায ও মুক্তাদীদের নামায হবে কি? এটা নিয়ে বড়ই পেরেশানি ও সমস্যায় আছি। সঠিক ও উত্তম একটি সমাধান দিলে কৃতজ্ঞ থাকবো।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
যদি উযূ করার পর থুতু ফেললে তা লালচে হয় তবে ঐ উযূ দ্বারা নামায পড়ালে আপনার মুক্তাদীর কারো নামায সহীহ হবে না। ঐ ভাব কাটার পরে পুনরায় উযূ করে নামায পড়তে হবে। আর থুতু হলদে বর্ণের হলে উযূ নষ্ট হবে না। এ অবস্থা নিয়ে আপনার নামায পড়ানো অন্যায় হয়েছে।
এক্ষেত্রে আপনি উযূর এতটুকু পূর্বে মিসওয়াক করবেন যততুকু পরে আর রক্ত আসে না। এরপর উযূ করবেন। এতেই আপনি মিসওয়াক করার ছাওয়াব পেয়ে যাবেন। পাশাপাশি একজন ডেন্টিস্টের শরণাপন্ন হলে হয়তবা সমস্যাটি দূর হয়ে যাবে।– আদ্দুররুল মুখতার ১/২৪(দারুল কুতুব) ; আল মুহীতুল বুরহানী ১/৩৮; মারাকীল ফালাহ, পৃষ্ঠা ৪৫; ফাতওয়ায়ে দারুল উলূম দেওবন্দ ১/১১১

 833,871 total views,  19 views today