প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, আমি এক সফরে এক মুফতী সাহেবের সাথে ছিলাম। তার খুব জ্বর হলো, সে দুদিন পরেই ডাক্তার দেখিয়ে ঔষধ খেলো। তিনি তো আল্লাহর উপর ভরসা করেন নাই ঔষুধের উপর ভরসা করেছেন। সে বললো ঔষধ খাওয়া সুন্নত, আসলেই কি নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঔষধ খেয়েছিলেন ? খেয়ে থাকলে পুরো হাদীসটা দিলে উপকৃত হবো।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
অসুস্থতায় ওষুধ সেবন করা তাওয়াককুলের পরিপন্থী নয়। বরং ওষুধ সেবন করে আল্লাহ তাআলার উপর ভরসা করা সুন্নাত।
عن أسامة بن شريك قال قالت الأعراب يا رسول الله ألا نتداوى ؟ قال نعم يا عباد الله تداووا فإن الله لم يضع داء إلا وضع له شفاء أو قال دواء إلا داء واحد قالوا يا رسول الله وما هو ؟ قال الهرم

অর্থঃ হযরত উসামা বিন শরীক (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, বেদুঈন আরবেরা একদা বলল, হে আল্লাহ্‌র রাসূল, আমরা কি চিকিৎসা গ্রহন করব না? তিনি বললেন, হ্যাঁ হে আল্লাহ্‌র বান্দারা তোমরা চিকিৎসা গ্রহন কর। আল্লাহ তাআলা আমন কোন রোগ রাখেননি যার প্রতিষেধক তিনি রাখেননি। কিন্তু একটি রোগ ব্যতীত। তারা বলল ইয়া রাসূলাল্লাহ তা কি? তিনি বললেন, বার্ধক্য। -সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং ২০৩৮।
عن عائشة قالت كان رسول الله صلى الله عليه و سلم إذا أخذ أهله الوعك أمر بالحساء فصنع ثم أمرهم فحسوا منه
অর্থঃ হযরত আয়েশা (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পরিবারের কারো জর হলে তিনি হিসা(এক প্রকার তরল খাদ্য যা ওষুধের কাজ দিত)বানানোর আদেশ করতেন। অতঃপর তা বানানো হত। এরপর তিনি তা থেকে (কিছু কিছু করে) পান করাতে পরিবারের অন্যান্যদের আদেশ করতেন।- সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং ২০৩৯

 824,394 total views,  1,265 views today