প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম ১। লঞ্চে জামাআতে মাগরিবের নামায আদায় করার সময় কিবলামুখী হয়ে দাড়াই, কিন্তু প্রথম রুকুতে যাওয়ার আগেই লঞ্চ ঘুরে যায়। নামায আদায় করার পড়ে হৈচৈ শুরু হয়ে যায়। (উল্লেখ্য যে- মুসল্লী বেশী থাকায় প্রায় অর্ধেক লঞ্চই ভরা ছিল)। এখন প্রশ্ন হলো নামায কি হয়েছে ? ভবিষ্যতে এরকম হলে কি করতে হবে ? ২। লঞ্চ নদীতে থাকা অবস্থায় এশার নামাযের সময় হয় এবং কেবলা কোন দিকে বুঝা যায় না এমন অবস্থায় হুকুম কি ?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। কিবলা থেকে সীনা ঘুরে গেলে নামায সহীহ হয়নি। তা পুনরায় আদায় করতে হবে। কেননা নামাযে কিবলামুখী হওয়া ফরজ। এক্ষেত্রে করনীয় হল, যখনি লঞ্চ ঘুরে যাবে মুছল্লীরাও সাথে সাথে ঘুরবে অন্যথায় নামায সহীহ হবে না।–আল বাহরুর রায়েক ২/২০৭; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৬৩
২। লঞ্চে থাকা অবস্থায় একটু চেষ্টা করলে কিন্তু কিবলা নির্ধারণ করা যায়। আমার বাস্তব অভিজ্ঞতাও এমন। চাঁদ তারকার অবস্থান নির্ধারণ করে বা আশপাশের কাউকে জিজ্ঞাসা করে অথবা লঞ্চের স্টাফদের কাউকে জিজ্ঞাসা করে কিবলা নির্ধারণ করা যায়। এরপরেও কোনভাবে নির্ধারণ করতে না পারলে সেক্ষেত্রে মনের প্রবল ধারণার ভিত্তিতে কিবলা নির্ধারণ করে নামায পড়বে।–বাদায়েউস সানায়ে ১/১১৮; রদ্দুল মুহতার ১/৪৩২

 830,611 total views,  978 views today