প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম ১। যেসব ইসলামিক ভিডিওতে মহিলা থাকে সেসব ভিডিও কি দেখা যাবে? আর পুরুষ মানুষ কি পুরষদের নিয়ে বানানো ইসলামিক ভিডিও দেখতে পারবে? ২। অনেক সময় দেখা যায় কুরআন পড়ছে কিংবা নামায পড়ছে এসব ফটো কি রাখা যাবে? ৩। শাইখ তামীম আল আদনানীর লেকচার শুনা যাবে কি? ৪। অনেক সময় অযু করার পর মেসওয়াক করার কথা মনে হয় তখন মিসওয়াক করার পর পুনরায় উযূ করতে হবে নাকি শুধু কুলি করলেই হবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। না, প্রশ্নে উল্লেখিত উভয় প্রকার ভিডিও দেখা নাজায়েয। তবে মহিলা সম্বলিত ভিডিও দেখার গুনাহ বেশী। তাছাড়া প্রাণীর ভিডিও আবার ইসলামিক হয় কীভাবে? এটাও একটি কিয়ামতের আলামত। না জানি কবে সূদ, ঘুষ, জুয়া, যৌতূক ইত্যাদিও ইসলামিক হয়ে যাবে। একান্ত অপারগতা ব্যতীত কোন প্রাণীর ছবি তোলা বা ভিডিও করা নাজায়েয ও হারাম। দারুল উলূম দেওবন্দসহ উপমহাদেশের প্রায় সকল দারুল ইফতার ফাতওয়া এমনই। নিম্নে দারুল উলূম দেওবন্দের এ সংক্রান্ত দুটি প্রশ্নোত্তরের লিঙ্ক দেওয়া হল-
http://www.darulifta-deoband.com/home/ur/Halal–Haram/57199
এবং
http://www.darulifta-deoband.com/home/ur/Others/68673

২। যদি উক্ত ছবি অনেক ছোট হয় বা চেহারা অস্পষ্ট হয় বা মাথাবিহীন হয় বা চেহারা মিটানো থাকে তবে রাখা যাবে অন্যথায় নয়।–আদ্দুররুল মুখতার ১/৬৪৮; জাওয়াহিরুল ফিকহ ৩/৩২৩

৩। কারো সম্পর্কে মন্তব্য করতে হলে তাকে চিনতে হয় এবং তার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হয়। আর আমি তাকে চিনিনা এবং তার বক্তব্যও কখনো শুনিনি। তাই মন্তব্য করা সম্ভব নয়।

৪। না, পুনরায় উযূ করার প্রয়োজন নেই। কুলি করে নিতে পারেন।

 829,785 total views,  152 views today