প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম আজ মাছ ধরতে গেলে জামাআতে নামায পড়বে কিনা এব্যাপারে আপনার একটি মাসআলা পড়লাম। আমার প্রশ্ন আমি চাকুরিজীবি। আমাদের অফিসের নামাযের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমাদের অফিসে যখন লোক থাকে তখন জামাতে নামায হয়। এমনকি দুজনেও জামাতে নামায হয়। তবে অফিসের সব স্টাফ নামায না পড়ায় অনেক সময় একাও নামায পড়ি। আর নামায পড়ানোর জন্য কোন ইমাম রাখা নেই। আমিই সাধারণত নামায পড়াই। তবে আমার থেকে ভালো কোন লোক আসলে তখন সে পড়ায়। আমার প্রশ্ন আমি এখন কি করবো? উল্লেখ্য আমাদের অফিস ছয় তলায় তবে লিফট আছে এবং মসজিদও একটু দূরে যদিও খুব দূরে না। তবে নামাযের ব্যবস্থা থাকার পরেও মসজিদে গেলে হয়তো স্যাররা রাগ করতে পারেন। আমি প্রশ্নটি যদি ঠিক ভাবে করতে না পেরে থাকি তবে কিছু জানার থাকলে বলবেন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
শরীআতসম্মত উযর (যেমন মসজিদ অনেক দূরে হওয়া বা অসুস্থ হওয়া বা প্রচুর বৃষ্টি হওয়া ইত্তাদি) ব্যতীত মসজিদ ছাড়া অন্য কোথাও জামাআত করা মাকরূহ। তাই আপনাদের মসজিদে জামাআতে অংশগ্রহন করা কর্তব্য। তবে বৃষ্টি বাদল বা এধরনের কোন উযরের কারনে মাঝে মধ্যে অফিসে জামাআত করতে পারেন। কর্তৃপক্ষ কোন আপত্তি জানালে তাদেরকে বুঝিয়ে বলতে পারেন। আর ৯৫ শতাংশ মুসলমানদের এ দেশে আপত্তি না করারই কথা।-সুনানে আবূ দাউদ, হাদীস নং ৫৪৯; রদ্দুল মুহতার ১/৫১৯; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৮২

 826,500 total views,  860 views today