প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম হুজুর লজ্জার কারণে নাম, ঠিকানা প্রকাশ করলাম না। হুজুর বর্তমানে আমি দীনের উপরে চলি। বিভিন্ন সময় মসজিদে দ্বীনি কথাও বলি। কিন্তু হুজুর আমি আগে এমন ছিলাম না। খুবই লজ্জার বিষয় যে, আমার জীবনের একটা বড় অংশ কেটেছে নেকেট ছবি দেখে। এই ব্যাপারে আমার মনে বেশ কিছু প্রশ্ন উদয় হয় তার উত্তর কাউকে লজ্জায় জিজ্ঞাসা করতে পারি না। বেশ কিছুদিন ধরে আপনার সাইটি পড়ছি। আপনাকে সহীহ মনে হয়েছে তাই প্রশ্ন গুলো আপনাকেই করলাম। হুজুর আমি যখন নেকেট দেখতাম তখন দুই রকমের নেকেট হতো। এক ধরনের নেকেটে ক্রিয়া কারীরা নিজেদের ইচ্ছায় ভিডিও করতো মানুষকে দেখানোর জন্য আর এক ধরনে নেকেট হতো অনিচ্ছায়। অর্থাৎ ক্রিয়াকারীদের মধ্যে একজন লুকিয়ে ভিডিও করতো, যেমন ছেলে আগে থেকে ভিডিও ক্যামেরা লুকিয়ে রাখতো অথবা অন্যে কেউ লুকিয়ে রাখতো যা ক্রিয়া কারীরা কেউ জানতো না অথবা কোন মহিলার নেকেট গোছলের ভিডিও লুকিয়ে করতো অথবা ধর্ষণের ভিডিও করতো ইত্যাদি ইত্যাদি। আমার প্রথম প্রশ্ন ১। এই ভিডিও দেখার দ্বারা কি যারা স্বেচ্ছায় তাদের গোপন ছতর দেখিয়েছে তাদের হক নষ্ট হয়েছে? প্রশ্ন ২। যারা তাদের ছতর দেখাতে চায়নি কিন্তু গোপনে বা অনিচ্ছা সত্ত্বেও ভিডিও করা হয়েছে, তাদের ভিডিও দেখার দ্বারা কি তাদের হক নষ্ট হয়েছে? আমার মাঝে মাঝে মনে হয় হক নষ্ট হয়েছে আবার মাঝে মাঝে মনে হয় তারা তো জানে না তাই হক নষ্ট হবার কথা না। প্রশ্ন ৩। যদি হক নষ্ট হয়ে থাকে তবে তা আদায়ের পদ্ধতি কি? তারা সবাই তো বাংলাদেশী না। তাদের খুজে পাওয়া তো অসম্ভব। কারণ কে কোন দেশের তা জানা সম্ভব না আর জানলেও যাওয়া বা যোগাযোগ করা সম্ভব না। হুজুর দোয়া করবেন আল্লাহ তা’য়ালা যেন আমাকে ক্ষমা করেন এবং যদি হক নষ্ট হয়ে থাকে তবে তাদের হক আদায়ের তাওফীক দান করেন এবং সারা জীবন এই ধরণের গুনাহ যেন আর আমার দ্বারা না হয় তার তাওফীক দান করেন। আমীন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১+২+৩। আপনি আল্লাহ তাআলার নিকট খালেছভাবে তাওবা করবেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের গুনাহ থেকে বিরত থাকবেন। ইংশাআল্লাহ আল্লাহ তাআলা মাফ করে দিবেন। আর যাদের অশ্লীল ভিডিও দেখেছেন তাদের নিকট মাফ চাইতে হবে না। দুআ করি আল্লাহ তাআলা আপনাকে উক্ত গুনাহ থেকে বেঁচে থাকার তাওফীক দান করুন।–সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ৪৭৫০; সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং ৩৫৪০

 832,221 total views,  585 views today