প্রশ্ন : আস্‌সালামু আলাইকুম, ১) বাবা তার সম্পদ সন্তানকে(১ছেলে-৩মেয়ে) না দিয়ে অন্য কাউকে রেজিস্ট্রি করে দিতে পারবেন কিনা? তাতে করে উনি গুনাহগার হবেন কিনা?উহা কি রকম গুনাহ। ২) বাবা তার সম্পদ সন্তানকে না দিয়ে অন্য কোন প্রতিষ্ঠান (হাসপাতাল-ডায়াগনস্টিক সেন্টার)/ বৃদ্ধ আশ্রম রেজিস্ট্রি করে দিতে পারবেন কিনা? তাতে করে উনি গুনাহগার হবেন কিনা? হলে, উহা কি রকম গুনাহ। ৩) যদি উপরল্লেখিত বিষয়ে দিতে না পারেন তবে কি বাবা তার পুরা সম্পদ সন্তানকে না দিয়ে মসজিদ-মাদ্রাসায় দিয়ে যেতে পারবেন কিনা। ৪) বাবা যদি তার সম্পদ সন্তান ও উক্তস্থানের মাঝে দিয়ে যেতে চান, তা সুষ্ঠুভাবে কি উপায়ে বন্টন করতে পারেন। ৫) অথবা অছিয়ত না করে গেলে সন্তানেরা নিজেদের মধ্যে তা কি ভাবে বন্টন করতে পারেন। উল্লেখ্য, বাবার শুধুমাত্র ৪তালা বাড়ী আছে ও ক্যাশ টাকা আছে।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। কেউ সম্পদের কিছু অংশ স্বীয় জীবদ্দশায় ছাওয়াবের আশায় বা অন্য কোন প্রয়োজনে কাউকে দিতেই পারেন। তবে শর্ত হল কোন ওয়ারিশকে ঠকানোর নিয়তে এমনটি না করা চাই। আর পূরো সম্পদ ওয়ারিশদেরকে ঠকানোর নিয়তে কাউকে দেওয়া জায়েয নয়। এতে পিতা অনেক বড় গোনাহগার হবেন। আর ঠকানোর নিয়ত না থাকলেও ওয়ারিশদেরকে বঞ্চিত করে সমূদয় সম্পদ এভাবে দেওয়া ঠিক নয়। যদিও দিলে এবং তাদেরকে হস্তান্তর করে দিলে তারা মালিক হয়ে যাবেন।–সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং ২৮০৮; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৪/৩৭৪; রদ্দুল মুহতার ৬/৬৫০,৬৫১

২+৩+৪। এক তৃতীয়াংশ সম্পদ তো সদকায়ে জারিয়ার জন্য মসজিদ মাদরাসা ইত্যাদিতে নির্দ্বিধায় দান করে যেতে পারেন। আর ওয়ারিশগণ সম্পদের মুখাপেক্ষী না হলে এবং তাদেরকে ঠকানোর নিয়ত না থাকলে সমূদয় সম্পদও দান করে দেওয়া যায়। আর ঠকানোর বা তাদেরকে বঞ্চিত করার নিয়তে হলে জায়েয হবে না। তবে উত্তম হল উল্লেখিত কোথাও সম্পদ দান করে দিতে চাইলে এক তৃতীয়াংশ দিয়ে বাকী সম্পদ ওয়ারিশদের জন্য রেখে যাওয়া।–সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং ২৮০৮; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৪/৩৭৪; রদ্দুল মুহতার ৬/৬৫০,৬৫১

৫। নিম্নোক্ত লিঙ্কে আপনি আপনার উত্তর পেয়ে যাবেন ইংশাআল্লাহ-
http://muftihusain.com/ask-me-details/?poId=1539

 833,067 total views,  282 views today