প্রশ্ন : আমার এক প্রতিবেশী যার দুই জন স্ত্রী। সে প্রচুর নেশা করে এবং যখন নেশা করে তখন এক সাথে দুই স্ত্রী কে বাধ্য করে একই সাথে তার সাথে মিলন করার জন্য যা তার স্ত্রীদের পছন্দ নয়। অনেকটা নেকেট ভিডিওর মত। মনে হয় নেকেট ভিডিও দেখেই সে এমনটা করতে আগ্রহী হয়। এখন তাদের জন্য স্বামীর হুকুম মানা কি জরুরী? উল্লেখ্য তাদের স্বামী উগ্র মেজাযী। যদি কথা না শোনে তবে সামনে যা পায় তাই দিয়ে পিটানো শুরু করে। স্ত্রীরা গরীবের মেয়ে হওয়াতে কষ্ট করে সংসার করছে। কারণ তাদের স্বামী অনেকটা সম্পদশালী। আর জঘণ্য মেজাযের হওয়াতে কেউ কিছু বলতেও পারে না। আশে পাশের প্রতিবেশীরা সবাই তাদের স্বামীকে ভয় পায় ও ঘৃনা করে। আল্লাহ তা’য়ালা যেন তাদের স্বামীকে হেদায়াত দান করেন।

উত্তর :

না, এভাবে একসাথে দুই স্ত্রীর সাথে মেলামেশা করা জায়েয নয়। খুবই জঘন্য কথা। এটা সম্পূর্ণ বিকৃত ও কুরুচিপূর্ণ মানসিকতার পরিচায়ক। এক স্ত্রীর জন্য অপর স্ত্রীর সতর দেখা সম্পূর্ণ নাজায়েয ও হারাম। স্বামীর এ হুকুম পালন করা স্ত্রীদের জন্য জায়েয নয়। এক্ষেত্রে তারা স্বামীকে ঠাণ্ডা মাথায় হেকমতের সাথে বোঝাবে এবং আল্লাহ তাআলার হুকুম না মানার ও এ জঘন্য কাজের ভয়াবহতা সম্পর্কে অবহিত করবে। মদ পানের অপকারিতা এবং তার আযাব সম্পর্কে নিজেরা জেনে স্বামীকে তা বোঝাবে। আর তাকে দ্বীনের উপরে উঠানোর জন্য সর্বাত্মক চেষ্টার পাশাপাশি দুআ করতে থাকবে। ইংশাআল্লাহ সব ঠিক হয়ে যাবে।–সূরা মায়েদাহ, আয়াত ৯০; সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ২৪৭৫; সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৭৯৪; রদ্দুল মুহতার ১/৪০৪

 825,775 total views,  135 views today