প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। যাকাত প্রসঙ্গে আমার দুইটি প্রশ্ন ছিলো। আমি নিচে তাদের বিশদ বর্ণনা দিচ্ছি। অনুগ্রহ করে আমাকে উত্তর দিয়ে বাধিত করবেন। ১. আমি আমার বন্ধুদেরকে কিছু টাকা ধার দেই ২০১০ সাল থেকে। এরা এক একজন বিভিন্ন সমস্যায় পড়ে টাকা নিয়েছিলো। এর মধ্যে একজন ২.৫ লক্ষ, একজন ৭৬ হাজার টাকা নিয়েছিলো। সব টাকা একসাথে নেয়নি অল্প অল্প করে নিয়েছিলো। কিন্তু এরপর থেকে তারা টাকা গুলো আর শোধ করেনি। বর্তমানে তাদের অবন্হা মোটামুটি ভালো কিন্তু হয়তোবা আমার অবন্হা তাদের চাইতে তুলনামুলক ভালো হওয়ার কারনে ওরা টাকাটা দেয়নি। আমি জানি না তারা আদৌ দিবে কিনা? আর দিলেও কখন দিবে? আমিও চক্ষু লজ্জায় চাইতে পারছি না। এমতবস্হায় আমাকে কি এই সব টাকার যাকাত দিতে হবে? ২. আমি অংশীদারের ভিত্তিতে একটি ব্যাবসার সাথে সংযুক্ত। মুলধন ৫ লক্ষ টাকা করে। এখানে আমরা ইন্ডিয়া থেকে বিভিন্ন মেডিকেল যন্ত্রপাতি ক্রয় করে বাংলাদেশে কিছুটা লাভে বিক্রি করি। ঢাকাতে আমাদের একটি অফিস আছে। এই ব্যাবসায় আমরা কোন কিছু উৎপাদন করি না সে জন্য আমাদের কোন কাচামালও নেই। এমতবস্হায় আমাকে কি উক্ত টাকার উপর যাকাত দিতে হবে? জাযাকাল্লাহু খাইরান।

উত্তর :

১। উক্ত টাকা হস্তগত হওয়ার পূর্বে আপনার জন্য যাকাত দেওয়া ওয়াজিব নয়। যদিও দিলে আদায় হয়ে যাবে। তবে পাওয়ার পর বিগত বছরসমূহের যাকাত হিসাব করে আদায় করে দিতে হবে।–রদ্দুল মুহতার ২/২৬৬; ফাতওয়ায়ে দারুল উলূম দেওবন্দ ৬/৭৫

২। হ্যাঁ, বছরান্তে আপনাদের নিকট থাকা টাকার এবং মেডিকেল যন্ত্রপাতির বাজারদরের উপর যাকাত ফরজ হবে।–তাবয়ীনুল হাকায়েক ২/৭৭; তাতারখানিয়া ২/২৩৭

 828,358 total views,  873 views today