প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, নিচের কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর জানালে সঠিকভাবে নামায আদায় করতে পারবো। আসরের নামায জামাআতে ১ম রাকাত পাই নাই- ১। ইমামের সাথে শেষ বৈঠকে কি চুপ করে বসে থাকবো নাকি তাশাহহুদ পড়বো। ২। রাকাআত কার হিসাব অনুযায়ী গননা করা হবে? যেমন: আমার ১ম রাকআত= জামাআতের ২য় রাকাআত? ৩। তাশাহুদ (১ম বৈঠক) জামাতের ২য় রাকাতে (আমার ১ম রাকাত) বসবো, না আমার ২য় রাকাতে (জামাতের ৩য় রাকাতে) বসবো? ৪। আমার ১ম রাকাতে (জামাতের ২য় রাকাত) সুরা ফাতিহার পরে অন্য সুরা মিলাতে হবে? ৫। আমার ২য় রাকাতে (জামাতের ৩য় রাকাত) সুরা ফাতিহার পরে অন্য সুরা মিলাতে হবে? ৬। আমার ৩য় রাকাতে (জামাতের ৪র্থ রাকাত) সুরা ফাতিহার পরে অন্য সুরা মিলাতে হবে? ৭। সব রাকাতেই যদি সুরা ফাতিহার পরে অন্য সুরা ইচ্ছা করে মিলাই তাহলে কি কোন সমস্যা হবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। তাশাহহুদ পড়বেন।

২+৩। ইমামের সাথে তিন রাকাআত আদায়ের পর চতুর্থ রাকাআত আদায়ের জন্য যখন আপনি দাঁড়াবেন তখন কিরাআতের ক্ষেত্রে তা আপনার প্রথম রাকাআত হিসেবে গণ্য হবে। অর্থাৎ প্রথম রাকাআতে যেভাবে সূরা ফাতেহার সাথে সূরা মিলানো হয় তেমনিভাবে এ রাকাআতেও সূরা ফাতেহার সাথে কিরাআত মিলাবেন। অনুরূপভাবে আপনি ইমামের সাথে এক রাকাআত পেলে ইমামের সাথে এক রাকাআত আদায়ের পর যখন দাঁড়াবেন তখন প্রথম দুই রাকাআতে সূরা ফাতেহার সাথে কিরাআত মিলাবেন এবং তৃতীয় রাকাআতে শুধু সূরা ফাতেহা পড়বেন। আর বৈঠকের ক্ষেত্রে যদি এক রাকাআত ইমামের সাথে পেয়ে থাকেন তবে একাকী এক রাকাআত আদায়ের পর এবং তিন রাকাআত আদায়ের পর বসবেন। দুই রাকাআত না পেয়ে থাকলে একাকী দুই রাকাআত আদায়ের পর বসবেন।
সারকথা, ইমামের সাথে ছুটে যাওয়া নামায আদায় করার সময় কিরাআতের ক্ষেত্রে তা প্রথম রাকাআত হিসেবে গণ্য করতে হবে। আর বৈঠকের ক্ষেত্রে শেষের দিক দিয়ে গণ্য করতে হবে।

৪+৫+৬+৭। ইমামের পিছনে কোন রাকাআতেই কোন কিরাআত (সূরা ফাতেহা বা অন্য কোন সূরা) পড়বেন না। কেননা হাদীস শরীফে আছে ইমামের কিরাআতই মুক্তাদীর জন্য যথেষ্ট।
সুত্রসমূহঃ সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ৬৩৫; সুনানে নাসায়ী, হাদীস নং ৮৬০; সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং ৮৫০; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৯১; রদ্দুল মুহতার ১/৫৪৬

 830,568 total views,  935 views today