প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, আমার খালাত ভাই (যে তার নানির দুধ পান করেছিল), তার মামাত বোনকে বিয়ে করতে বাধ্য হয়েছিল। আমি তাদেরকে অনেক আগেই তাদের বিবাহ করা হারাম বলেছিলাম (আপনার থেকেই ফতোয়া নিয়ে) এবং পরিবারের সবাই মেনেও নিয়েছিল যে তাদের বিয়ে হবে না। ছেলে যদিও বিয়ে করতে চেয়েছিল কিন্তু আমি তাকে বুঝালে সে আল্লাহকে ভয় করে বিয়ে না করার জন্য রাজি হয়। কিন্তু মেয়ে ছিল অনেকটা বাকা এবং মেজাজী সে যে কোন ভাবেই করতে চাইছিল। মেয়েকে অনেক বুঝালেও সে বুঝে না এমনকি তার বাবা অনেক মারধর করে তাতেও কোন কাজ হয় নাই। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত গত ১৫ দিন আগে আমার মামত বোন বাসা থেকে পালিয়ে আমার খালাত ভাইয়ের বাসায় আসে এবং বলে এখনই বিয়ে না করারলে সে আত্মহত্যা করবে পরিস্থিতি এমন হয় যে (আর মেয়েটি একটু জিদ্দি থাকায়) বিয়ে না করালে ঠিকই আত্মহত্যা করতো । তাই এলাকার সবাই ছেলেকে বিয়ে করতে বাধ্য করায় এবং সেই সময়েই বিয়ে করিয়ে দেয়। যেহেতু ইসলামে তীব্র প্রয়োজনে হারাম জিনিসও হালাল হয়ে যায় তাই উক্ত বিবাহ কি জায়েয হয়েছে বিস্তারিত জানতে চাই?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
না, উক্ত বিবাহ জায়েয হয়নি। বরং তা সম্পূর্ণ নাজায়েয ও হারাম। শরীয়তে এ ব্যাপারে স্পষ্ট নিষেধাজ্ঞা এসেছে। আপনার খালাত ভাই তার মামাত বোনের দুধ চাচা হয়ে গিয়েছে। তাদের মাঝে সম্পর্ক ছিন্ন করা জরুরী।–সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ৫০৯৯; সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৩৬৪২; তাবইয়ীনুল হাকায়েক ২/৬৩৭; আদ্দুররুল মুখতার ৩/২১৭

 822,970 total views,  967 views today