প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, (প্রশ্নটি দীর্ঘায়িত হওয়ায় এবং আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট করার জন্য আগেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি) আমার কুরআন শরীফের শেষ পাড়ার ছোট ছোট সূরা আলহামদুলিল্লাহ মুখস্থ আছে এবং বড় সূরা গুলোর কিছু কিছু আয়াতও মুখস্থ আছে। যা আমি কুরআনের প্রথম থেকে সিরিয়াল অনুযায়ী পড়ি (উল্টো পড়ি না)। আবার কোন আয়াত/সুরা কোন ওয়াক্তের জন্য নির্দিষ্ট করে নেই না (সিরিয়ালে যেটা আসে সেটাই পড়ি)। আমি জানি যে, কোন সালাতে আয়াত পড়তে হলে এক রাকাআতে মিনিমাম ৩ আয়াত অথবা ৩০টি অক্ষর থাকতে হয়। সেই অনুপাতেই পড়ি। বুঝার সুবিধার্থে আয়াতগুলো লিখে দিলাম, যেমন- Surah Al-Bakarah 255-256 (১ম রাকাতে পড়ি) Surah Al-Bakarah 284-286 (২য় রাকাতে পড়ি) Surah Ali-Imran 8-9 (৩য় রাকাতে পড়ি) Surah Ali-Imran 110 (৪র্থ রাকাতে পড়ি) Surah Anam 162 (১ম রাকাতে পড়ি) Surah Yunus 62-63 (২য় রাকাতে পড়ি) Surah Zumar 53-54 (৩য় রাকাতে পড়ি) Ha-Mim-Sisjdah 29-33 (৪র্থ রাকাতে পড়ি) (এভাবে মুখস্ত করতে চাই নাই কিন্তু কিছু কিছু আয়াত ফজিলতপুর্ন এবং দাওয়াতের জন্য লাগে বিধায় মুখস্ত করেছিলাম) এভাবে না পড়লে- বড় সুরাগুলোর আয়াত পড়া হয় না, তাই কয়েকবার ভুলেও গিয়েছিলাম, তাই এভাবে পড়ি যাতে করে ইয়াদ শক্তি বৃদ্ধি পায়। তবে আমার মনে একটু সন্দেহ হয় এভাবে পড়া কি জায়েয হবে নাকি?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
হ্যাঁ, এভাবে পড়া যাবে।

 833,087 total views,  302 views today