প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। সম্মানিত মুফতী সাহেব। জনাব, আমি একটি প্রসিদ্ধ প্রতিষ্ঠানের একাউন্স ম্যানেজার ছিলাম। তার কয়েকজন মালিক ছিল। আমার একটি কম্পিউটার অফিসের কাজে ব্যবহৃত হত। আমি সেটা প্রায় ৫-৬ মাস অফিসের কাজে ব্যবহারের জন্য দিয়ে রাখি। যখন অফিস অন্যত্র স্থানান্তর করা হয় তখন আমি আমার কম্পিউটারটি বাসায় নিয়ে যাই। নিয়ে যাওয়ার সময় আমি কম্পিউটারের বেশ কিছু পার্টস পরিবর্তন করে নেই। যার খরচ বাবদ প্রায় ৩৫০০/- টাকা খরচ হয়। বিষয়টি আমি শুধুমাত্র ক্যাশ বুকে কম্পিউটার বাবদ খরচ দেখিয়ে নিয়েছিলাম। কিন্তু কোন মালিকের কাছ থেকে অনুমতি নেইনি এবং বলিওনি। পরবর্তীতে সকল মালিককে একত্রে পেয়ে মাফ চেয়ে নিয়েছি। তবে ভুলে একটি যন্ত্রাংশের কথা বলতে মনে ছিল না। যদিও সেটার ব্যাপারে পূর্বেই শুধু চেয়ারম্যান স্যারকে বলেছিলাম । তিনি খুশি মনে সকলের পক্ষে থেকে ক্ষমা করে দিয়েছিলেন। কিন্তু মিটিংয়ে যখন সকলের সামনে আমি যন্ত্রাংশ গুলোর কথা বলি তখন পূর্বে ঐ একটি যন্ত্রাংশ যার মূল্য ১২০০/- টাকার মত হবে বলতে মনে ছিল না। এখন পূনরায় সকলের কাছে বলার প্রয়োজন আছে কি? হয়তো এখন আবার ঐ একটি ব্যপারে বলতে গেলে সকলে বেশি নেকামো মনে করবে। কারণ আমি যখন সকলের কাছে ক্ষমা চাইলাম তখন সকলেই হেসে দেয় এবং ক্ষমা করে দেয়। এখন আবার আরেকটার কথা বলতে গেলে কেমন দেখায় আর তাছাড়া বিরক্তও হতে পারে। কারণ ১২০০/- টাকা মূল্যের একটি জিনিস কোম্পানি হিসাবে খুবই সামান্য ও তুচ্ছ একটি জিনিস। যার জন্য বার বার যাওয়া তাদের সময় নষ্ট করা। তাই এখন কি পূনরায় ঐ একটি যন্ত্রাংশের ব্যাপারে মাফ চাইতে হবে নাকি চেয়ারম্যান স্যারের সকলের পক্ষ থেকে মাফ করে দেয়াই যথেষ্ট হবে? জাযাকাল্লাহু খাইরন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
আপনার কম্পিউটারটি কোম্পানির কাজে বেশ কিছুদিন ব্যবহৃত হওয়ায় কোম্পানি কর্তৃক কিছু পার্টস পরিবর্তন করে নেওয়া সঙ্গত। আর কোম্পানির প্রয়োজনে এ ধরণের বিষয় সাধারণত চেয়ারম্যান অনুমোদনের কর্তৃত্ব রাখে। চেয়ারম্যান সাহেব কর্তৃক মাফ করে দেওয়ার দ্বারাও এমনটি বুঝে আসে। সেক্ষেত্রে কোন সমস্যা নেই।

 825,537 total views,  1,002 views today