প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ। আমার স্ত্রী কিছুদিন পরপরই বাপের বাড়ীতে চলে যায়। স্বামীর চাইতে তার বাবা মায়ের কাছেই থাকতে সে বেশি পছন্দ করে। এ বিষয়ে শ্বশুর বাড়ীর সাথে কথা হলে তারা আমার স্ত্রীর পক্ষেই কথা বলে এতে তাদের সাথে ঝগড়া হয়। ঝগড়া করার কারণে শ্বশুর বাড়ীর লোকজন বলে তাদের মেয়েকে আমাদের বাড়ীতে আর দিবে না। আমি আমার স্ত্রীকে অনেক বুঝিয়ে ও ভাল কথা বলেও আমার বাড়ীতে আনতে পারিনি। তারা যখন বলেছে তাদের মেয়েকে আমাদের বাড়ীতে আর দিবে না। আমিও রাগের মাথায় ওকে বলেছি তোমাদের বাড়ীতে সবাইকে বলে দিও আমি তোমাকে আমাদের বাড়ীতে আর নিব না। তোমার সাথে আমার আর কোন সম্পর্ক নাই। এই কথাগুলো আমি ওদের কথার পরিপ্রেক্ষিতে বলেছি সম্পূর্ণ রাগের মাথায়। আমার এ কথাগুলো বলার সময় এমন কোন নিয়ত ছিল না যে, একথা বললেই সে তালাক হয়ে যাবে। সম্পূর্ণ রাগের মাথায় বলেছি। প্রশ্ন ১। তাহলে আমার স্ত্রী কি তালাক হয়ে যাবে? প্রশ্ন ২। কুরআন হাদীসের আলোকে অবাধ্য স্ত্রীকে আয়ত্বে আনার কৌশল জানতে চাই? বিস্তারিত জানালে আপনার কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকব।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম ওয়ারাহমাতুল্লাহ
১। প্রশ্নের বর্ণনা অনুযায়ী আপনার স্ত্রীর উপর কোন তালাক পতিত হয়নি।-ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৩৭৫; রদ্দুল মুহতার ৩/২৯৮
২। তাকে নিয়মিত নসীহত করতে থাকা। তার জন্য দ্বীনী তালীমের ব্যবস্থা করা। আমরা তো বর্তমানে তাদের দ্বীনী কোন খোরাক না দিয়ে কেবল তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করি।
তাদেরকে স্বামীর হক সম্পর্কে হাদীস শোনাতে হবে। এছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে তাদেরকে দ্বীনী তালীম দিতে হবে। হাদীস শরীফে আছে-
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, তোমরা স্ত্রীদের সাথে উত্তম আচরণ কর। কেননা তাদেরকে পাঁজরের হাড্ডি থেকে সৃষ্টি করা হয়েছে। আর পাঁজরের হাড্ডিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বাঁকা হল উপরেরটি। সুতরাং তুমি যদি তা সোজা করতে যাও তাহলে ভেঙ্গে ফেলবে (অর্থাৎ তালাক হয়ে যাবে)। আর যদি একেবারে ছেড়ে দাও তাহলে বাঁকাই থেকে যাবে। তাই স্ত্রীদের সাথে উত্তম আচরণ কর।–সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ৩৩৩১; সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৩৭২০
অর্থাৎ তাদের মধ্যে কিছুটা বাঁকা স্বভাব থেকেই যাবে। তাকে ভালো কথা ও উপদেশ দিতে হবে এবং বুঝাতে থাকতে হবে। আর আপনাকেও সংযত হতে হবে। ছাড় দেওয়ার মনমানসিকতা রাখতে হবে। সর্বদা নিজের হক উসূলে সচেষ্ট হলে চলবে না। তার ভিতরের ভালো গুণগুলোও দেখতে হবে। মনে রাখতে হবে সকলের মধ্যেই ভালো মন্দ রয়েছে।

 827,853 total views,  368 views today