প্রশ্ন : ১। তাবলীগ করা কী সহীহ? ২। এর তরীকা কতটুকু সহীহ? ৩। পরিপূর্ণ হকের ওপর প্রতিষ্ঠিত আছে এমন কোন জাআমাত বর্তমান সমাজে আছে কী?

উত্তর :

১+২। শুধু সহীহ নয় বরং প্রত্যেকের জন্য জরুরী। উলামায়ে কেরামের ওয়াজ নসীহত, মুআজ্জিনের আযান, আল্লাহ ওয়ালা পীর মাশায়েখের খানকাহের মেহনত, হক্কানী উলামায়ে কেরামের লেখনী ও কিতাবাদি ইত্যাদি সহ প্রচলিত দাওয়াত ও তাবলীগ সবগুলোই দাওয়াতের ব্যপকতার অন্তর্ভুক্ত। তাবলীগ বা দাওয়াতের কাজ এটা নবীদের কাজ। নবী রাসূল পাঠানোর অন্যতম লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হল দাওয়াত ও তাবলীগ।
আর আপনার প্রশ্ন যদি প্রচলিত তাবলীগের পদ্ধতি ও তরীকা নিয়ে হয় তবে আপনি নিম্নোক্ত লিঙ্কে আপনার উত্তর পেয়ে যাবেন ইংশাআল্লাহ-
http://muftihusain.com/ask-me-details/?poId=2026
৩। অবশ্যই আছে এবং কিয়ামত পর্যন্ত থাকবে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন-
لاَ تَزَالُ طَائِفَةٌ مِنْ أُمَّتِى يُقَاتِلُونَ عَلَى الْحَقِّ ظَاهِرِينَ إِلَى يَوْمِ الْقِيَامَةِ
অর্থঃ কিয়ামত পর্যন্ত আমার উম্মতের একটি দল সর্বদা ন্যায়কে প্রতিষ্ঠা করত লড়াই করে জয়ী থাকবে।–সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৫০৬৩
ইমাম বুখারী (রহঃ) উক্ত হাদীস দ্বারাই একটি শিরোনাম কায়েম করে অতঃপর বলেন-
وهم أهل العلم
অর্থঃ আর তারা (অর্থাৎ হকের উপর প্রতিষ্ঠিত জামাআত) হল আহলে ইলম তথা উলামায়ে কেরাম।(সহীহুল বুখারী, কিতাবুল ইতিসাম ওয়াস সুন্নাহ, অধ্যায় ১০)
অনুরূপভাবে ইমাম তিরমিজী (রহঃ) উক্ত হাদীসটি উল্লেখ করার পর বলেন-
قال محمد بن إسمعيل : قال علي بن المديني هم أصحاب الحديث
অর্থঃ মুহাম্মাদ ইবনে ইসমাঈল রহ. (অর্থাৎ ইমাম বুখারী) বলেন, আলী ইবনু মাদীনী বলেছেন তারা (অর্থাৎ হকের উপর প্রতিষ্ঠিত জামাআত) হল মুহাদ্দিসীনে কেরাম।
এজন্যই যুগ যুগ ধরে উলামায়ে কেরাম এই উম্মতের চালকের আসনে সমাসীন। তারা মানুষকে হেদায়েতের জন্য বহুমুখী খেদমত আঞ্জাম দিয়ে যাচ্ছে। ইমামতী, মুআজ্জিনী, ওয়ায নসীহত, মাদরাসা, তালীম, তারবিয়াত, লেখনী, কিতাবাদি, আত্মশুদ্ধি, খানকাহের মেহনত, দাওয়াত ও তাবলীগ সহ বিভিন্ন ভাবে উলামায়ে কেরাম দ্বীনকে প্রতিষ্ঠার জন্য সেই শুরু জামানা থেকে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে।
কাজেই হক্কানী উলামায়ে কেরামের সাথে উঠাবসা করুন। তাদের নেতৃত্বে দ্বীনের মেহনত করতে থাকুন। তারাই পরিপূর্ণ হকের উপর প্রতিষ্ঠিত।

 832,934 total views,  149 views today