প্রশ্ন : মোটর সাইকেল এর শোরোমে ম্যানেজার হিসেবে চাকরি করা যাবে কি? যদি মালিক ব্যাংক থেকে সুদ ভিত্তিক ঋণ নিয়ে ব্যাবসা করে। আমি যে বেতন পাবো তা কি হালাল হবে? মনে প্রশ্ন আসে যে উনি (মালিক) তো তার ব্যাবসার আয় থেকে ব্যাংকের ঋণ (সুদসহ) পরিশোধ করবেন। এখন আমি যে ওখানে কাজ করছি তা কি উনার ঋণ (সুদসহ) পরিশোধে সহায়তা হয়ে যাবে?

উত্তর :

হ্যাঁ, জায়েয হবে। আসলে সূদের ভিত্তিতে ঋণ নিলে উক্ত ঋণের টাকা বা তা দ্বারা খরিদকৃত যে কোন পণ্য হারাম হয় না। কেননা মূল ঋণে তো কোন সমস্যা নেই। নাজায়েয হল ঋণের সাথে সূদের চুক্তি করা এবং সূদের লেনদেন করা।
আর আপনার মনে যে প্রশ্ন তা তো প্রতিটি ক্ষেত্রেই আসার কথা। আচ্ছা বলুন তো, বর্তমানে কোন কোম্পানি বা বড় ব্যবসায়ী কি ব্যাংক লোন ব্যতীত ব্যবসা করে। যেমন ধরুন বেক্সিমকো ফার্মা। এদের কি পরিমাণে ব্যাংক লোন রয়েছে তা কি আপনি জানেন? এখন তাদের ঔষধ ক্রয় করার অর্থ যদি ধরেন তাদের ঋণ সূদসহ পরিশোধে সাহায্য করা তবে আপনি দুনিয়ায় কি কোন লেনদেন করতে পারবেন? এখানে উদাহরণস্বরূপ একটি বিষয় বললাম মাত্র।
তাই শরীয়াতে এক্ষেত্রে একটি মূলনীতি নির্ধারণ করেছে অন্যায়ের কোন ধরনের সহযোগিতা নাজায়েয আর কোনটা জায়েয। আর ঐ মূলনীতির আলোকেই মুফতীয়ানে কেরাম মাসআলা দিয়ে থাকেন। নতুবা জীবনযাপনই দুর্বিষহ হয়ে পড়বে।-রদ্দুল মুহতার ৫/২৭২; নাইলুল আউতার ৫/১৫৪; মুফতী শফী (রহঃ) আহকামুল কুরআন ৩/৭৪; সূরা মায়েদা, আয়াত ২; জাওয়াহিরুল ফিকহ ২/৪৫৩; ফিকহী মাকালাত ৩/৩৯

 822,952 total views,  949 views today