প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। জাগতিক/জেনারেল লাইনের-কোনো এমন চাকরী করার লক্ষ্য না থাকলে যে চাকরি পরীক্ষার সনদ দেখে দেওয়া হয়, পরীক্ষায় ভালো রেজাল্টের জন্য সহপাঠীর থেকে উত্তর জানা যাবে কী? বা তার খাতা দেখে লেখা যাবে কী? শুনেছি চাকরী করার উদ্দেশ্যে যদি ঐ কাজ করা হয় তবে প্রতারণা হবে, যা জায়েয নয়, কারন সনদ তার নিজের যোগ্যতায় অর্জিত হয়নি, চাকরী পাওয়ার যোগ্য তাহলে সে নয়, কিন্তু তারপরও ঐ সনদের দাপটে সে চাকরী পাচ্ছে যা তার নিজের যোগ্যতা নয়। তাহলে কেউ যদি শুধু পিতার মাইর খাওয়া থেকে বাঁচার জন্য, যে বিষয়টা পারে না সেই বিষয়টা সহপাঠি থেকে দেখে পাশ করার চেষ্টা করে তারটাও কি নাজায়েয/ হারাম? যদি হারাম হয়ে থাকে, তবে পরীক্ষার সময় সহপাঠীরা কেউ যদি কোনো উত্তর জানতে চায় সেটা বলাও কী হারামের আওতাভুক্ত? জাযাকুমুল্লাহ্ খয়রন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
চাকরি উদ্দেশ্য থাক বা না থাক কোন অবস্থাতেই (চাই পিতার শাসন থেকে বাঁচার জন্য হোক না কেন) পরীক্ষায় অপরের খাতা দেখা বা কাউকে দেখানো নাজেয়েয ও হারাম। এগুলো আমানতের খেয়ানত এবং মিথ্যার শামিল। প্রত্যেক পরীক্ষাতেই কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নকল করা, কারো খাতা দেখা বা কাউকে দেখানো সবই নিষিদ্ধ থাকে। পরীক্ষার্থীও এগুলো পালনে অঙ্গীকারবদ্ধ থাকে। এর খেলাফ কিছু করা স্পষ্ট আমানতের খেয়ানত। যা কোন মুমিনের কাজ হতে পারে না।–সূরা নিসা, আয়াত ৫৮; মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং ১২৩৮২

 826,486 total views,  846 views today