প্রশ্ন : বাটার বা চিজ এগুলো কি খাওয়া যাবে? বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মাধ্যম থেকে শুনা যায়, এগুলোতে নাকি শুকরের চর্বি দেয়া হয় (প্রায় পণ্যের ব্যাপারে এভাবে শোনা যায়)। বর্তমানে প্রায় সময় একটি কথা শুনতেছি E Code যে সকল পন্য থাকে তা নাকি হারাম। এখন তো কোন কিছু ক্রয় করতে হলে ভয় লাগে। হালাল না হারাম এই রকম সন্দেহের মধ্যে পড়ে যাই। দয়া করে যদি জানাতেন কিভাবে তা মেইনটেইন করে চলতে পারি? তাছাড়া ইন্টারনেট সার্চ করলে এগুলোর ব্যাপারে অনেক কিছু পাওয়া যায়। কিন্তু এগুলা কি বিশ্বাসযোগ্য কোন মাধ্যম না গুজব তা কি করে বুঝবো?

উত্তর :

কোন কিছু হারাম সাব্যস্ত হতে হলে তার জন্য সুস্পষ্ট প্রমান জরুরী। আর বাটার (মাখন) ও চিজ (পনীর) এগুলো দুগ্ধজাত খাবার। আমাদের দেশেও এগুলো প্রস্তুত করা হয়। আর এগুলো এমন কোন জিনিসও না যা তৈরি করতে শুকরের চর্বির প্রয়োজন হয়। আসলে এগুলো এক ধরণের গুজবই বটে। সুনির্দিষ্ট দলীল প্রমান ব্যতীত এগুলোকে হারাম বলা যাবে না। তবে যদি কখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায় (যেমন তার গায়েই হারাম কোন উপাদান লিখা) কোন কিছুর মধ্যে হারাম কিছু মিশানো হচ্ছে অথবা বিষয়টা একেবারেই স্বতঃসিদ্ধ (স্পষ্ট) হয় তখন তা খাওয়া নাজায়েয হবে। এর পূর্বে হালাল বস্তু হারাম হবে না।

 827,937 total views,  452 views today