প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম কেউ যদি কাউকে মজা করে বলে তুমি আমার স্ত্রী আর সে যদি বলে আমি রাজি তাহলে নাকি বিয়ে হয়ে যায়। আর নাবালিগ ছেলে ও মেয়ে এই কথা একে অপরকে বললে নাকি কিছু হয় না। আমি যখন ছোট ছিলাম বয়স ৭/৮ হবে, তখন আমি আর আমার চাচাতো বোন খেলতেছিলাম, বোনটি আমার চাইতে বয়সে ছোট। তখন আমি তাকে বলি তুমি বড় হলে আমাকে কি বিয়ে করবে, তখন সে বলে হ্যাঁ করবো। কথাগুলো আমার বড় ভাই শুনতে পায়। আর কেউ শুনে নি। বোনটির বিয়ে হয়ে গেছে, এক সন্তানের মা। আমি এখনো বিয়ে করিনি। এখন এইসব বিষয় নিয়ে বার বার মনে চিন্তা আর ওয়াসওয়াসা আসতেছে গত কয়েকদিন ধরে। ১। এই কথা বলার কারণে কি ওর সঙ্গে আমার বিয়ে হয়ে গেছে? তখন তো আমি নাবালক ছিলাম, বোনটিও নাবালিকা ছিল। ২। গতরাতে এ নিয়ে চিন্তা করতে করতে ওয়াসওয়াসার পরিমাণ খুবই বেড়ে যায়। এক পর্যায়ে আমি মুখে উচ্চারণ করে বলি তালাক, তালাক, তালাক । ১, ২, ৩ এই ভাবে। কথাগুলো একা একা বলছি কেউ শুনে নাই। এই বোনকে অন্তরে উদ্দেশ্য করে বলেছি। এতে কি তার বর্তমান বিবাহের কিছু হবে? ৩। এখন মনে শুধু আসতেছে আমি তখন এই বললাম না তো তোর চৌদ্দগুষ্টি সহ তালাক। নাকি চৌদ্দ গোষ্ঠীর তালাকের কথা শুধু মনে আসছে, আমি মুখে উচ্চারণ করি কি করি নাই আমি সন্ধেহে আছি। এখন কি আমি আমার আত্মীয় স্বজনের মধ্য থেকে কাউকে বিবাহ করলে তালাক হয়ে যাবে? দয়া করে দ্রুত উত্তর দিয়ে আমাকে সাহায্য করুন। এ নিয়ে খুবই দুশ্চিন্তায় আছি।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। না, হয়নি।
২। না, তার বিবাহের কিছু হবে না।
৩। না, তালাক হবে না।
সুত্রসমূহঃ ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৩৮৪; রদ্দুল মুহতার ৩/৩১৯

 833,126 total views,  341 views today