প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, আমার আম্মার ২.৫ ভরি স্বর্ণালংকার আছে। আর নগদ টাকা বলতে ব্যাগের ভিতর ১০/১৫ টাকা করে সব সময় থাকে। শেষ হয়ে গেলে আবার আব্বার কাছ থেকে ১০/১৫ টাকা করে নেয়। এই অবস্থায় আম্মার কি যাকাত দেওয়া লাগবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
উক্ত আড়াই ভরি স্বর্ণের সাথে যখন আপনার আম্মার কিছু টাকা হস্তগত হয় তখন তিনি নেসাবের মালিক হয়ে যান। এখন দেখতে হবে ঠিক এক বছর পরে তার নিকট উক্ত স্বর্ণের সাথে যাকাতযোগ্য অন্য কোন সম্পদ {যেমন টাকা পয়সা, চাই তা সামান্য (দুই/এক টাকা) হোক না কেন} থাকে কিনা। যদি থাকে তবে তার উপর ঐ দিনের সম্পদের উপর যাকাত ফরজ হবে। ধরে নেয়া যাক, তিনি রমযানের ১০ তারিখে আড়াই ভরি স্বর্ণের সাথে ১০ টাকার মালিক হলেন। এর দ্বারা তিনি রমযানের ১০ তারিখে নেসাবের মালিক হলেন। এখন দেখতে হবে পরের বছর রমযানের ৯ তারিখে তার নিকট নেসাব পরিমান সম্পদ আছে কিনা। যদি উক্ত আড়াই ভরি স্বর্ণের সাথে সামান্য টাকা থাকে তবে তিনি নেসাবের মালিক রয়েছেন। তার উপর যাকাত ফরজ। আর যদি পরের বছর রমযানের ৯ তারিখে তার নিকট উক্ত স্বর্ণের সাথে অন্য কোন (যাকাতযোগ্য) সম্পদ না থেকে থাকে তবে তিনি বছরের দুই প্রান্তে নেসাবের মালিক না হওয়ায় তার উপর যাকাত ফরজ হবে না।–মারাকীল ফালাহ, পৃষ্ঠা ৭১৪; আল বাহরুর রায়েক ২/৩৫৬

 831,784 total views,  148 views today