প্রশ্ন : প্রথমে সালাম নিবেন। মনে করি আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন। আমার প্রশ্ন হলো এই যে মানুষ মাজারে যায় এবং পীরদের দের মাধ্যমে আল্লাহ্‌র কাছে কিছু চায়। তাদের কে যদি বলা হয় যে, তোমরা পীরদের মাধ্যমে না চেয়ে নবী করিম (সা:) এর মাধমে আল্লাহ তাআলার কাছে দোয়া করো। কিন্তু এই সময় তারা বলে পীরদের পেলে তারা নবীকে পাবে আর নবীকে পেলে আল্লাহ্‌কে পাবে। তারা কি সঠিক কাজ করছে নাকি ভুল কাজে আছে? আর মাজারে গিয়ে শুকরিয়ার নামায পড়ে তাও কবর কে সামনে রেখে। তাদের কথা হলো তারা যা করবে তা পীর এর মাধ্যমে করবে ইত্যাদি। কুরআন ও সহীহ হাদীসের মাধ্যমে একটু দয়া করে উওর দিবেন এবং দোয়া করবেন। এবং কোন কিতাব থেকে উওর দিবেন তা যদি একটু বলে দেন তাইলে বুঝতে সুবিধা হবে। ভুল এুটি ক্ষমার চোখে দেখবেন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
মাজারে গিয়ে মৃত ব্যক্তিদের নিকট চাওয়া, কবরকে সামনে নিয়ে নামায পড়া বা দুআ করা সবই নাজায়েয ও শিরকী কাজ। এগুলো ঈমানের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন-
لَعَنَ اللَّهُ الْيَهُودَ اتَّخَذُوا قُبُورَ أَنْبِيَائِهِمْ مَسَاجِدَ
অর্থঃ আল্লাহ তাআলা ইয়াহুদীদের ধ্বংস করুন, তারা তাদের নবীদের কবরকে সিজদার স্থান বানিয়েছিল।–সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ৪৪৪১
অন্য হাদীসে আছে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন-
لا تجلسوا على القبور ولا تصلوا إليها
অর্থঃ তোমরা কবরের উপর বসো না এবং কবরের দিকে ফিরে নামায পড়ো না।–সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ২২৯৪
অন্যত্র রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন-
وَلاَ تَجْعَلُوا قَبْرِى عِيدًا
অর্থঃ তোমরা আমার কবরকে মেলার স্থান বানিও না।–সুনানে আবূ দাউদ, হাদীস নং ২০৪৪
তবে কোন বুজুর্গ বা আল্লাহর ওলীর অসীলায় দুআ করা জায়েয। সাহাবায়ে কেরাম থেকে এর প্রমাণ পাওয়া যায়।-সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ১০১০

 827,266 total views,  534 views today