প্রশ্ন : ১। আমার স্ত্রী কথায় কথায় বলে আমি তোমার সংসার করব না। আমাকে ছেড়ে দাও, তালাক দিয়ে দাও। ইহা কি গুনাহর শামিল? ২। এবং এই খেত্রে স্ত্রীর বলা তালাক কার্যকর হবে কি? স্ত্রী কি মুখে তালাক বলে তালাক দিতে পারে? ৩। এই ক্ষেত্রে করনীয় কি শরীয়তের আলোকে জানাবেন। অপেক্ষায় রইলাম।

উত্তর :

১+৩। হ্যাঁ, শরীয়তসম্মত কোন উযর ব্যতীত স্ত্রীর জন্য তালাক চাওয়া অনেক বড় গোনাহের কাজ। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন-
أَيُّمَا امْرَأَةٍ سَأَلَتْ زَوْجَهَا طَلاَقًا فِى غَيْرِ مَا بَأْسٍ فَحَرَامٌ عَلَيْهَا رَائِحَةُ الْجَنَّةِ
অর্থঃ যে মহিলা বিনা উযরে তার স্বামীর নিকট তালাক চায় তার জন্য জান্নাতের ঘ্রান হারাম।–সুনানে আবূ দাউদ, হাদীস নং ২২২৮
আপনি তাকে বিষয়টি ভালো করে বুঝাতে পারেন। আর তার হকের ব্যাপারে যত্নবান হউন। আপনি তার হক যথাযথ আদায় করলে তিনি তালাক কেন চাইবেন? হতে পারে আপনার পক্ষ থেকে কোন ত্রুটির কারনেই সে তালাক চাইতে বাধ্য হচ্ছে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একথা স্মরণ রাখা দরকার, “তোমাদের মধ্যে উত্তম ঐ ব্যক্তি যিনি তার স্ত্রীর নিকট উত্তম”। সারকথা উভয়েই উভয়ের হক যথাযথভাবে আদায় করলে সমস্যা হবে না ইংশাআল্লাহ।
২। না, উক্ত কথার দ্বারা কোন তালাক পতিত হবে না। স্ত্রী স্বামীকে কখনো তালাক দিতে পারে না। আর দিলেও তা কার্যকর হয় না। হ্যাঁ, স্বামী তালাক গ্রহণের ক্ষমতা স্ত্রীকে দিলে স্ত্রী তা নিজের নফসের উপর গ্রহন করতে পারে।

 823,674 total views,  545 views today