প্রশ্ন : কোন ব্যাক্তি যদি এমনিতেই কোন সাধারণ বিষয়ে বউ এর সাথে রাগ হয়ে, নিয়ত না থাকা সত্যেও তাকে ভয় লাগানোর জন্য এক সাথে তিন তালাক বলে এবং ১০ মিনিট পর মিলন করে ফেলে, কিন্তু তালাক দেওয়ার পূর্বে সে মনে মনে আল্লাহ কে বলে হে আল্লাহ ক্ষমা কর আমি তালাক দিচ্ছি না এমনি প্রকাশ করছি। এই অবস্থায় তালাক হবে কি না? আর যদি হয় তাহলে (হালালা) করা ছাড়া পুনরায় প্রথম স্বামী বিয়ে করতে চাইলে করণীয় কি?

উত্তর :

হ্যাঁ, উক্ত অবস্থাতেও স্ত্রীর উপর তিন তালাকে মুগাল্লাজা পতিত হয়ে তার স্বামীর জন্য স্থায়ীভাবে হারাম হয়ে যাবে। শরয়ী হালালাহ ব্যতীত তাদের জন্য ঘর সংসার করা সম্পূর্ণ হারাম। শরয়ী হালালার সূরত হল, স্ত্রীর ইদ্দত পার হবার পর অন্য কোন পুরুষ তাকে বিবাহ করবে। এরপর তাদের মাঝে শারীরিক সম্পর্ক (মেলামেশা) হওয়ার পর সে স্বেচ্ছায় স্ত্রীকে তালাক দিবে। অতঃপর তার ইদ্দত পার হবার পর প্রথম স্বামী চাইলে তার সাথে নতুনভাবে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারে।
উল্লেখ্য যে, তালাক রাগের মাথায়, হাঁসতে হাঁসতে, ঠাট্টা করত যেভাবেই দেওয়া হোক না কেন তা পতিত হয়। হাদীস শরীফে আছে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন-
ثَلاَثٌ جِدُّهُنَّ جِدٌّ وَهَزْلُهُنَّ جِدٌّ النِّكَاحُ وَالطَّلاَقُ وَالرَّجْعَةُ
অর্থঃ তিনটি জিনিস এমন রয়েছে, গুরুত্ব সহকারে বললেও সংঘটিত হয় এবং ঠাট্টা করে বললেও সংঘটিত হয়। বিবাহ, তালাক ও স্ত্রীকে ফিরিয়ে নেওয়া।-সুনানে আবূ দাউদ, হাদীস নং ২১৯৬; সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং ১১৮৪

 831,438 total views,  657 views today