প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। জনাব, আমার বাবা ঢাকা গাউছিয়া মার্কেটে একটা দোকানে সেলসম্যান হিসেবে চাকরি করছেন। তিনি প্রায় ৩৫ বছর এই পেশাতেই আছেন। পৈতৃক সম্পত্তি বলতে আমার বাবার কেবল বাড়ির জায়গাটুকু, বাজারে ২ শতক জায়গা আর ৫ শতকের মত আবাদি জমি আছে। ২০০৮ সালে টাকা পয়শা ধার করে ব্যবসা শুরু করেছিলেন। কিন্ত ২ বছর না যেতেই বিশাল লসের শিকার হয়ে প্রায় ১০-১৫ লক্ষ টাকা ঋনগ্রস্থ হয়ে পড়েন। অবস্থা এমন যে সবটুকু জায়গা জমি বিক্রি করেও এটাকা শোধ করা সম্ভব না। এখন আবার চাকরি করছেন আব্বু এবং ঋনের বোঝা থেকে মুক্তি পাননি। আব্বু আশা করছে আমি ভার্সিটি থেকে পাস করে চাকরি পেলে এই টাকা শোধ করব। কারন আমি ছাড়া আর কোন আশাভরসা বা উপায় আব্বুর নাই। আমার প্রশ্ন হল- এই অবস্থায় কি আব্বু যাকাতের টাকা গ্রহণ করতে পারবে? যাকাতের একটি খাত তো ঋণগ্রস্তদের জন্য। আর একটা ব্যাপার হল আমার দাদা একজন দেওবন্দি আলেম ছিলেন। এলাকায় তাই আমরা যথেষ্ট সম্মান এবং ভালোবাসা পাই মানুষের কাছ থেকে। এই অবস্থাতে যাকাতের টাকা নেয়াতে লজ্জা পেতে পারেন আব্বু। কি করনীয়?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
প্রশ্নের বর্ণনা অনুযায়ী আপনার আব্বার জন্য যাকাতের টাকা গ্রহন করা জায়েয।–আদ্দুররুল মুখতার ২/৩৪৩; ফাতহুল কদীর ২/২৬৩

 831,458 total views,  677 views today