প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম হুজুর, আমি একজন কলেজের ছাত্র। হাইস্কুলে পড়াকালীন আমি এক হিন্দু মেয়েকে ভালোবেসে ফেলি। কিন্তু সে আমাকে ভালোবাসেনি। গত আগস্ট মাসের ৭ তারিখ ২০১৯, আমি সেই হিন্দু মেয়ের সাথে রাগে মেসেজে একটা কসম কেটে ফেলি। কসমটা হুবহু এরকম ছিল “আমি জানি তুমি আমাকে কোনদিনও ভালোবাসবে না, তাই আমি আমার প্রভু আল্লাহর নামে দিব্যি খেয়ে বলছি আমি তোমার সাথে সর্বনিম্ন HSC পরীক্ষার রেজাল্টের আগে যদি কথা বলি তাহলে আমি বেঈমান, প্রতারক ইত্যাদি।(ইনশাহ আল্লাহ)”। এখন আমার প্রশ্ন হল ১। হিন্দু ব্যক্তির সাথে কসম কাটা যায় কি না? আমি গুগলে কসম বিষয়ে জানতে পারলাম ‘আল্লাহ অর্থহীন কসমের জন্য পাকড়াও করবেন না’ ২। যেহেতু ইসলাম বিয়ের আগে প্রেম-ভালোবাসা সাপোর্ট করে না তাই আমার এ বিষয়ে করা কসমটি অর্থহীন কি না? ৩। আমি এখন চাইতেছি তার সাথে কথা বলতে কিন্তু আমার কসমটি যদি অর্থবহ হয়ে থাকে তাহলে তার সাথে কথা বললে আমি কি বেঈমান হয়ে যাব? ৪। এই কসম ভঙ্গের জন্য আমাকে কি কাফফারা আদায় করতে হবে? ৫। আমার কাফফারা আদায়ের ৩ প্রকারের কোনোটাই সামর্থ্য নাই। আমি যদি একটানা ৩ দিন রোযা রাখি সেটা কি আদায় হবে? ৬। কসম ভাঙ্গার আগে না পরে কাফফারা আদায় করতে হয়? plz দ্রুত উত্তর দিবেন।

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
উক্ত কসম খাওয়ার সাথে সাথেই ইংশাআল্লাহ মুখে বলেছিলেন কি? এটা জানানোর পরেই আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে ইংশাআল্লাহ।

 827,230 total views,  498 views today