প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম ১। ফজর নামাজে একটু দেরিতে উঠার ফলে যদি দেখা যায় যে, সুন্নত পড়তে গিয়ে শেষ হওয়ার পর ফরয যখন শুরু করলাম তখন ফরয নামাজের মাঝখানে যদি সূর্যোদয় হয় তাহলে কি বাকি নামাজ আদায় করব? নাকি পরে নতুন করে পড়তে হবে? সূর্যোদয়ের কত আগে ও পরে কতটুকু সময় নামাজের জন্য নিষিদ্ধ তা বললে ভাল হয়। ২। কিভাবে পিতামাতার তীব্র/সর্বোচ্চ সন্তুষ্টি লাভ করা যায়? পিতামাতার যদি কোনো কথা বা কাজে কষ্ট লাগে এবং তা যদি পরে বুঝতে পারা যায় কিন্তু তারা যদি খুব আদরের সাথে এবং ভালবেসে কথা বলে তাহলে কি বুঝা যায়, তারা আমার প্রতি সন্তুষ্ট এবং তারা মাফ করেছেন?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১। ফজরের নামায আদায়ের মাঝখানে সূর্য উঠে গেলে উক্ত নামায সহীহ হবে না। তা পুনরায় সূর্যোদয়ের পরে ক্বাযা পড়তে হবে।
যদি এমন হয় যে, সুন্নাত আদায় করলে ওয়াক্ত চলে যাবে সেক্ষেত্রে আপনি সুন্নাত ছেড়ে দিয়ে ফরজ নামায আদায় করবেন। আর সূর্যোদয়ের পূর্বে নামাযের নিষিদ্ধ সময় নেই। বরং সূর্যোদয় শুরু হলেই নামায নিষিদ্ধ হয়। সূর্যোদয়ের পরে প্রায় ১৫ মিনিট পর্যন্ত নামায নিষিদ্ধ।
২। এটা তো স্থান কাল পাত্র ভেদে ভিন্ন হয়। আপনিই ভালো করে জেনে থাকবেন তাদেরকে কিভাবে খুশি রাখা যায়। এক কথায় বলতে গেলে তাদের কোনরূপ কষ্ট দেয়া যাবে না। এমন কথা বা কাজ করা যাবে না যাতে তারা কষ্ট পায়। এবং তাদের বেশি বেশি সেবা যত্ন করতে হবে। তাদের সকল চাহিদা সাধ্যমত পূরণের চেষ্টা করতে হবে।
আর কখনো তারা কষ্ট পেলে তাদের নিকট ক্ষমা চেয়ে নিতে হবে।
সূত্রসমূহঃ সূরা ইসরা, আয়াত নং ২৩, ২৪; সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ৫৮৬; রদ্দুল মুহতার ১/৩৭০

 831,220 total views,  439 views today