প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম, ১। ইমানদার ছাড়া অন্য কারো জন্য দোয়া করতে কুরআনুল কারীমে নিষেধ করা হয়েছে, তো মানুষ মারা গেলে মসজিদে দোয়া করা হয়। ইমাম সাহেব সরাসরি বলেন- “হে আল্লাহ আপনি তাকে মাফ করে দেন” এটা বলা কি ঠিক ? ২। কিন্তু আমি আমিন বলি না। আমি বলি (হে আল্লাহ সে যদি ইমানদার হয়ে থাকে তাহলে তাকে মাফ করে দেন) এটা কি ঠিক আছে ? ৩। অনেক সময় দেখা যায় যে মারা গেছে সে- এক ওয়াক্ত নামাজও পড়িনি এমনকি রমজান/ঈদের দিনও নামাজ পড়ে না। আবার অনেকে বিভিন্ন বেদাতী (মাইজভান্ডার, কুতুববাগ) এবং নাস্তিক ইত্যাদি। সেক্ষেত্রে যদি আমি উক্ত কথাই বলি (হে আল্লাহ সে যদি ইমানদার হয়ে থাকে তাহলে তাকে মাফ করে দেন) তাহলে কি জায়েজ হবে?

উত্তর :

ওয়া আলাইকুমুস সালাম
১+২। হ্যাঁ, মুসলমান হয়ে থাকলে ঠিক। তাছাড়া মসজিদে সাধারণত মুসলমান ছাড়া অন্য কারো জন্য দুআ চাওয়া হয় না। অমুসলিমদের জন্য মৃত্যুর পর দুআ করা জায়েয নয়।
কাজেই মুসলমান হলে আমীন বলতেও সমস্যা নেই।
৩। হ্যাঁ, শুধু নাস্তিক ব্যতীত এদের সকলের জন্যই দুআ করা জায়েয। নাস্তিকের জন্য মৃত্যুর পর দুআ করা জায়েয নেই।
কেউ মুসলমান হলে যতই গুনাহগার হোক না কেন তার জন্য দুআ করা জায়েয বরং উচিত।

 833,783 total views,  998 views today