প্রশ্ন : আমি একটি সরকারি প্রাইমারী স্কুলে চাকরি করি, অনেক সময় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বিভিন্ন দিবস পালন করার জন্য শহীদ মিনারে ফুল দেয়া হয়। যা পালন না করলে চাকরি হারানোর ভয় থাকে (শহীদ দিবস, জাতীয় দিবস, শোক দিবস, পহেলা বৈশাখ ইত্যাদি)। আর দেশের প্রত্যেক সরকারি চাকরিজীবীদের বৈশাখ পালন করার জন্য বৈশাখী ভাতা দেয়া হয়। এই বৈশাখী ভাতা গ্রহন করা কি জায়েয হবে? জানালে অনেক উপকার হত।

উত্তর :

বৈশাখী ভাতা গ্রহণ করা জায়েয।এটা মূলত আপনার পারিশ্রমিকের একটা অংশ।কেননা এটা শুধুমাত্র চাকরিজীবীদেরকেই দেওয়া হয়।আর এটা গ্রহনের পর আপনি ইচ্ছাধীন।যে কোন কাজে তা ব্যবহার করতে পারেন।যেমন সরকারী চাকরিজীবীদের বাসা ভাড়ার জন্য একটা ভাতা দেওয়া হয়। এখন কেউ যদি তা বাসা ভাড়া ছাড়া অন্য কোন কাজে তা ব্যয় করে তবে তা জায়েয। কেননা যেহেতু এটা তার পারিশ্রমিকের একটা অংশ তাই সে যে কোন কাজেই তা ব্যয় করতে পারে।বৈশাখী ভাতাও অনুরূপ।এ ভাতার সাথে বৈশাখী নাম জুড়ে দেওয়ার কারনে তা হারাম হবে না।–আদ্দুররুল মুখতার ৬/৪; ফাতহুল কদীর ৯/৫৮; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৪/৪০৯।

প্রশ্নের অন্য অংশ সম্পর্কে আপনাকে অবহিত করা হবে ইংশাআল্লাহ।

 822,967 total views,  964 views today