প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। (১)স্ত্রী যদি আর্থিকভাবে স্বামীর সমান বা উনার চেয়ে অধিক সচ্ছল হয়ে থাকেন, তবে পারিবারিক কোন কোন ক্ষেত্রে স্ত্রী খরচ বহন করতে পারবে – এ ব্যাপারে শারঈ হুকুম কি? (২) স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই চাকুরীজীবী হওয়ার কারণে যদি দু’জনকে অনেক দূরত্বে দুই স্থানে বসবাস করতে হয়(প্রতি সপ্তাহে এক দিন বা দুই দিন একসাথে থাকা হয়), সেক্ষেত্রে স্বাভাবিকতই একের প্রতি অন্যের হক আদায়ে অনেক ঘাটতি থেকে যায়; আবার সন্তানরাও কোন কোন ক্ষেত্রে পিতা-মাতার সাহচর্য থেকে বঞ্চিত হয় কিংবা পিতার সাথে সন্তানদেরও দূরত্ব তৈরী হতে পারে। সেক্ষেত্রে করণীয় কি?

উত্তর :

১।স্ত্রী সচ্ছল হলেও তার ভরণপোষণ স্বামীর দায়িত্বে যদি স্ত্রী স্বামীর নিকট বা তার অনুমতিসাপেক্ষে কোথাও থাকে। অনুরূপভাবে অন্যান্য সাংসারিক খরচাদিও স্বামীর দায়িত্বে।তবে স্ত্রী স্বেচ্ছায় কিছু খরচ করলে তা করতে পারে।এবং সে এর ছাওয়াবও পাবে।– ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৫৪৪; ফাতাওয়া তাতারখানিয়া ৪/১৮৩।

২। মহিলাদের দায়িত্ব হল ঘর সামলানো। বিনা প্রয়োজনে তাদের ঘর থেকে বের হওয়া নিষেধ।আর সাংসারিক যাবতীয় খরচাদি স্বামীর দায়িত্বে।তাহলে মহিলা চাকরি করবে কেন? মহিলাদের চাকরির ক্ষেত্রে পুরুষদের সাথে সহবস্থানে পর্দার মত গুরুত্বপূর্ণ ফরজ লঙ্ঘন হয়।আর স্বামী এর দ্বারা দাইয়ূছের কাতারে শামিল হয়।হাদীস শরীফে আছে দাইয়ূছ কখনো জান্নাতে যেতে পারবে না। তাছাড়া এর দ্বারা সন্তানও মানুষ হয় না।তায় স্ত্রীর দ্রুত চাকরি ছেড়ে দিয়ে পরিপূর্ণ সাংসারিক হওয়া কর্তব্য।–সূরা আহযাব, আয়াত ৩২,৩৩; সূরা নিসা, আয়াত ৩৪; মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং ৫৩৭২।

 821,971 total views,  1,623 views today