প্রশ্ন : ১।কসরের নামাযের বাংলা অথবা আরবী নিয়ত জানতে চাই? ২। সফরের সময় দুই ওয়াক্ত নামায কোন সময়ে এক সাথে আদায় করা যাবে? বিস্তারিত জানাবেন ।

উত্তর :

১।কসর শুধুমাত্র যোহর, আছর ও ইশার ফরজ নামাযে হয়। আপনি যোহরের ক্ষেত্রে এভাবে নিয়ত করতে পারেন, হে আল্লাহ আমি যোহরের দুই রাকাআত ফরজ কসরের নিয়ত করছি।

২।সফরে বা বিশেষ কোন প্রয়োজনে দুই ওয়াক্তের নামাযকে পর্যায়ক্রমে তাদের নিজস্ব ওয়াক্তে একত্রে পড়ার অনুমতি রয়েছে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এমনটি করেছেন। অর্থাৎ যোহরকে তার শেষ ওয়াক্তে এবং আছরকে শুরু ওয়াক্তে পড়বে। অনুরূপভাবে মাগরিবকে শেষ ওয়াক্তে এবং ইশাকে শুরু ওয়াক্তে পড়বে।

عن عائشة رضي الله عنها قالت كان رسول الله صلى الله عليه و سلم في السفر يؤخر الظهر ويقدم العصر ويؤخر المغرب ويقدم العشاء

আয়েশা (রাঃ) বলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সফরে যোহরকে বিলম্ব করে (তার শেষ ওয়াক্তে) এবং আছরকে শুরু ওয়াক্তে পড়তেন। আর মাগরিবকে বিলম্ব করে (তার শেষ ওয়াক্তে) এবং ইশাকে শুরু ওয়াক্তে পড়তেন।–মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং ২৫০৩০; শরহু মাআনিল আছার, হাদীস নং ৯০০।

এভাবে যদিও বাহ্যিকভাবে মনে হয় দুই ওয়াক্তের নামাযকে একত্রে এক ওয়াক্তে পড়া হয়েছে কিন্তু বাস্তবে প্রত্যেক নামাযকে তার নিজস্ব ওয়াক্তে পড়া হয়েছে। তবে এক ওয়াক্তের মধ্যে দুই ওয়াক্তের নামাযকে একত্রে পড়লে তা সহীহ হবে না।– সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৩১৭৬; সুনানে নাসাঈ, হাদীস নং ৩০৩৮;বাজলুল মাজহুদ ৬/২৮২-২৯১।

 827,968 total views,  483 views today